| রাত ৮:৪০ - শুক্রবার - ১৬ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ - ৩রা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ - ৩রা রমজান, ১৪৪২ হিজরি

ময়মনসিংহে শিশুকে বাঁচাতে মা ও তাদের বাঁচাতে গিয়ে শ্রমিকের মৃত্যু

প্রোভিটা গ্রুপের সেপটিক ট্যাংকে পড়ে শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন ৩ বছর বয়সী শিশু রাহিত তার মা শ্রীমতি রুলী (৩০) ও প্রোভিটা গ্রুপের শ্রমিক হৃদয় হাসান (২২)। বুধবার রাত ৮টার দিকে ওই তিনজনের লাশ উদ্ধার করা হয়।

 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, ভালুকা উপজেলার ধীতপুর ইউনিয়নের বহুলি এলাকায় প্রভিটা ফিড কোম্পানি কোম্পানির সেপটিক ট্যাংকির ঢাকনার ভাঙা অংশ দিয়ে বুধবার সন্ধ্যায় পড়ে যায় রোহিত বাগচি নামে এক শিশু।

 

শিশুটিকে উদ্ধার করতে মা রুলি বাগচিও নামেন ট্যাংকের ভেতর। কিন্তু তারা উঠে না আসায় নিরাপত্তাকর্মী হৃদয় মিয়া ট্যাংকিতে নামেন তাদের উদ্ধার করতে।

 

এরপর কেউ উঠে না আসায় কারখানার অন্য শ্রমিকরা পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের খবর দেয়। পরে ভালুকা ও ত্রিশাল থানার পুলিশ এবং ত্রিশাল ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা উদ্ধার অভিযান শুরু করেন।

 

পরে রাত ৮টার দিকে শিশু রোহিত, তার মা রুলি ও নিরাপত্তাকর্মী হৃদয়ের লাশ উদ্ধার করা হয়।

 

রুলি বাগচির বাড়ি রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার বলদি পুকুরপাড় এলাকায়। প্রভিটা ফিডের কারখানায় কাজ করতেন তিনি।

 

তবে তাৎক্ষণিকভাবে কারখানার নিরাপত্তাকর্মী হৃদয় মিয়ার পরিচয় পাওয়া যায়নি।

 

ত্রিশাল ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার মুনিম সারোয়ার বলেন, তারা বেশ কিছুক্ষণ অনুসন্ধান করে লাশগুলো উদ্ধার করেন। অতিরিক্ত গ্যাসের কারণে তারা মারা যেতে পারেন।

 

ভালুকা থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম তিনজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশ উদ্ধার করে থানায় নেয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:২৭ অপরাহ্ণ | মার্চ ০৩, ২০২১