| রাত ১২:৩৬ - বৃহস্পতিবার - ৪ঠা মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ - ১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ - ১৯শে রজব, ১৪৪২ হিজরি

মমেক হাসপাতালে ১৫ তলার ২ টি ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা

দেশের অন্যতম সেবাকেন্দ্র ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের অবকাঠামো উন্নয়নসহ আরো এক হাজার শয্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে ১৫ তলার দুটি ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে সরকার।

 

এর মধ্যে একটি হাসপাতাল ভবন ও অন্যটি উচ্চতর প্রশিক্ষণ ও উচ্চশিক্ষা কার্যক্রমের জন্য ব্যবহার করা হবে। ১৫তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন নির্মাণের লক্ষ্যে উচ্চপর্যায়ের একটি প্রতিনিধি দল গত শনিবার প্রস্তাবিত ভবনের জমি পরিদর্শন করে।

 

ময়মনসিংহ গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাইফুজ্জামান চুন্নু জানান, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালটির শয্যা সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য সরকার আন্তরিক। এরই ধারাবাহিকতায় চরপাড়া মেডিকেল স্টাফ কোয়ার্টারের একাংশ ভেঙে এইচ টাইপের ১৫ তলাবিশিষ্ট একটি হাসপাতাল ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে।

 

এ নতুন ভবনে এক হাজার রোগীর শয্যার ব্যবস্থা রাখা হবে। নতুন ভবন নির্মাণের জন্য জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে।

 

 

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. চিত্ত রঞ্জন দেবনাথ জানান, কলেজের শিক্ষার্থীদের লেকচার ক্লাস, প্র্যাকটিস ক্লাস, পরীক্ষার হল, রোগীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষার ল্যাব এবং প্রশাসনিক ও একামেডিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ১৫ তলাবিশিষ্ট একটি ভবন বর্তমান প্রশাসনিক ভবনের উত্তরে খালি জায়গায় নির্মাণের প্রস্তাবনা রয়েছে।

 

অধ্যক্ষ আরো জানান, ১৯৬২ সালে প্রতিষ্ঠাকালে এ মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী সংখ্যা ছিল ২৫০। বর্তমানে কলেজে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২ হাজার ৩১০। প্রতিষ্ঠার পর একাডেমিক ভবনের পরিধি বাড়েনি।

 

এমবিবিএস, ডেন্টাল, পোস্ট গ্র্যাজুয়েট বিভিন্ন কোর্সে ছাত্র, শিক্ষক ও ছাত্র বৃদ্ধি পাওয়ায় বর্তমানে অনেক কষ্টে ক্লাস নেয়া হচ্ছে। এই একাডেমিক ভবন নির্মিত হলে ক্লাস রুমের সংকট দূর হবে।

 

গণপূর্ত অধিদপ্তর ময়মনসিংহ সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী একেএম কামরুজ্জামান জানান, মেডিকেল কলেজ এবং হাসপাতালে দুটি আলাদা জায়গায় ১৫ তলাবিশিষ্ট দুটি ভবন নির্মাণের লক্ষ্যে ডিপিপি প্রণয়নের জন্য স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উচ্চপর্যায়ের টিম সরেজমিন পরিদর্শন করেছে।

 

উচ্চপর্যায়ের এই টিমে ছিলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. কাজী আফজালুর রহমান, গণপূর্ত অধিদপ্তরের পপুলেশন প্রজেক্ট সেলের (পিপিসি) তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী একেএম সোহরাওয়ার্দী ও সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) ডা. মিছবাহ উদ্দীন আহমদ।

 

এ সময় তাদের সঙ্গে ছিলেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. ফজলুল কবির, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. চিত্ত রঞ্জন দেবনাথ, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. ওয়ায়েজ উদ্দিন ফরাজী, ময়মনসিংহ গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাইফুজ্জামান চুন্নু, গণপূর্ত বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. এনামুল হক প্রমুখ।

 

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপপরিচালক ডা. ওয়ায়েজ উদ্দিন ফরাজী জানান, এক হাজার শয্যার এ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রতিদিন আড়াই হাজার রোগী চিকিৎসা নেন। গত মঙ্গলবার ইনডোরে চিকিৎসাধীন মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা হচ্ছে ২ হাজার ৫৭৯।

 

প্রয়োজনীয় শয্যা না থাকায় বিভিন্ন ওয়ার্ডে ফ্লোরে ও বারান্দায় বিছানা পেতে রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

 

একই দিনে আউটডোরে ২ হাজার ৭৩০ রোগীর চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১:২১ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২১