| রাত ৮:২৩ - শুক্রবার - ১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ - ২রা আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ - ৯ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

ময়মনসিংহে স্বামী-স্ত্রীর পরস্পরের পরকীয়া সন্দেহের করুন পরিণতি

ময়মনসিংহে স্বামী ও স্ত্রী পরস্পরকে পরকীয়া সন্দেহ করতেন। এ নিয়ে কলহও চলছিল। আর এ পরকীয়া সন্দেহের মাসুল দিতে হচ্ছে। স্ত্রী আত্মহত্যা করেছেন, স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ।

 

ময়মনসিংহের ভালুকায় আয়েশা আক্তার পপি (২০) নামের এক গৃহবধূর লাশ ভালুকা মডেল থানা পুলিশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় পপির স্বামী নিশাদকে (২৪) পুলিশ আটক করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার দুপুরে ভালুকা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড পূর্ব ভালুকা এলাকায়।

 

পুলিশ জানায়, দুই বছর আগে নিশাদের সঙ্গে পপির বিয়ে হয়। বর্তমানে স্বামী-স্ত্রী পরস্পরকে পরকীয়ায় সন্দেহ করতো। ঘটনার দিন দুপুরে পরকীয়া নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া হয়।

 

এতে জেদ করে পপি নিজের ওড়না দিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ফাঁস নেয়। খোঁজ পেয়ে তাকে উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ হাসপাতাল থেকে পপির লাশ উদ্ধার করে স্বামী নিশাদকে আটক করে।

 

ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন বলেন, স্বামী-স্ত্রী পরস্পরকে পরকীয়া নিয়ে সন্দেহ করতেন। এ নিয়ে ঝগড়া করে পপি আত্মহত্যা করেন। এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগে মামলা হয়েছে। নিহতের স্বামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৩:০৫ পূর্বাহ্ণ | জানুয়ারি ২২, ২০২১