| সকাল ৯:৪১ - মঙ্গলবার - ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ - ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ - ৮ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি

করোনা’র সম্ভাব্য ঢেউ মোকাবিলায় ময়মনসিংহে প্রচারণায় পুলিশ

ময়মনসিংহে প্রচারণায় পুলিশ, মাস্ক ব্যবহার না করলে আইনগত ব্যবস্থা

ফাহিম মোঃ শাকিলঃ  শীতে করোনা সংক্রমণের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় ময়মনসিংহে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালিয়েছে জেলা পুলিশ। একই সঙ্গে জনসাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) দুপুরের দিকে নগরীর বীজমোড় পাটগুদামে জেলা পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামানের নেতৃত্বে এ প্রচারণা চালানো হয়। সেই সঙ্গে গণপরিবহনগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে ট্রাফিক পুলিশকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশ দেন পুলিশ সুপার।

 

এসময় তিনি বলেন, যারা মাস্ক ব্যবহার করবে না তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। করোনা মোকাবিলায় সর্বক্ষেত্রে মাস্কের ব্যবহার নিশ্চিত করা হবে।

 

এসময় অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শাহজাহান মিয়া, ফজলে রাব্বি, জয়িতা শিল্পী, হাফিজুর রহমান, কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফিরোজ তালুকদার, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ কামাল আকন্দ, জেলা ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমানসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকতারা উপস্থিত ছিলেন।

 

পুলিশ সুপার বলেন, বিশেষজ্ঞদের মতে আসছে শীতে দ্বিতীয় দফায় করোনার ঝুকি আবারো বাড়তে পারে। এ জন্য মাস্ক বাধ্যতামূলকভাবে পড়তে হবে। করোনা ঝুকি মোকাবেলায় আইন করা হয়েছে। মাস্ক না পরলে ৬ মাসের জেল ও ১ লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানার বিধান রয়েছে।

 

 

তিনি আরো বলেন, জেলা পুলিশ করোনার ঝুকি থেকে মানুষকে সতেচন করতে পুর্বের ন্যায় প্রচারণায় নেমেছে। এই প্রচারণা অব্যাহত থাকবে। মাস্ক বিহীন মানুষজনকে আইন সম্পর্কে জানানো, সচেতন করা এবং জেল জরিমানা সম্পর্কে অবহিত করতে প্রচারণা কার্যক্রম চালানো হচ্ছে।

 

এর পরও কেউ যদি মাস্ক বিহীন রাস্তায় চলাচল করেন তাহলে তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা জেল জরিমাণা করা হবে। মাস্ক বিহীন কাউকে রাস্তায় পেলে পুলিশ ও ম্যাজিষ্ট্রেট আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিবেন।

 

এ সময় তিনি নগরীর ব্রীজ মোড়ের বিভিন্ন ফলমুলের দোকান, হোটেল, নিত্যপণ্যের দোকানে মাস্কের গুরুত্ব, না পড়ার কারণে জেল জরিমাণা, ব্যবহার সম্পর্কে সচেতনতা এবং মাস্ক বিহীন ক্রেতাদের কাছে কোন ধরণের পণ্য বিক্রি না করতে দোকানীদেরকে পরামর্শ ও সচেতনতামূলক বক্তব্য রাখেন।

 

এ সময় তিনি বিভিন্ন দোকানের সামনে নোক মাস্ক, নো পণ্য, নো মাস্ক নো ফল, নো মাস্ক নো খাবার লেখা ব্যানার ফেস্টুন টানিয়ে দেন। এর আগে তিনি মাস্ক বিহীন পথচারী, রিস্কা, অটো, ভ্যান, ট্রাক, মিনি ট্রাক চালকদের মাঝে মাস্ক বিতরণ করেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:০৫ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ১১, ২০২০