|

ময়মনসিংহে প্রধানমন্ত্রী যে সকল উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ   ময়মনসিংহ বিভাগের উন্নয়নে ১৯৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এসময় তিনি বলেছেন, ‘এসব প্রকল্পের বাস্তাবায়ন করতে বাংলাদেশকে আরো উন্নত সমৃদ্ধ: দেশ হিসেবে গড়ে তোলা, জাতির পিতার স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়ে তোলার জন্য আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট চাই। হাত তুলে ওয়াদা করেন, যে ভোট দেবেন’

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে চাই। আর ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত বাংলাদেশে গড়ে তোলা হবে।

 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার কোনো চাওয়া-পাওয়ার নেই। আপনাদের সেবা করাই আমার কাজ। আপনাদের কাছ থেকে সহযোগিতা চাই। সবাই সুন্দরভাবে বাঁচবেন। উন্নত জীবন পাবেন সেটাই আমরা চাই। ময়মনসিংহ বিভাগের কার্যক্রম যেভাবে সুন্দরভাবে চলতে পারে আপনাদের কাছে সেই সহযোগিতা চাই।

 

এসময় তিনি দেশের মানুষের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন জানিয়ে কবির ভাষায় বলেন, ‘নিঃস্ব আমি, রিক্ত আমি দেবার কিছু নেই। আছে শুধু ভালোবাসা দিয়ে গেলাম তাই’।

 

শুক্রবার বিকেলে ময়মনসিংহের ঐতিহাসিক সার্কিট হাউজ মাঠে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

 

তিনি বলেন, বিভাগ নামকায়াস্তে নয়, ময়মনসিংহ বিভাগের সকল দপ্তরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। ২০০৮ সালে ১৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন থেকে ২০ হাজার মেগাওয়াট বিদুৎ উৎপাদন করে রেকর্ড গড়েছি। দেশের ৯৩ভাগ মানুষ এখন বিদ্যুৎ পাচ্ছেন। ১৯৫টি প্রকল্পের কাজ শুরু হলে মানুষের কর্মসংস্থান হবে। আমরা ২১০০ সালের জন্য ডেলটা প্রকল্পের প্ল্যান তৈরি করে ফেলেছি।

 

এদিকে জনসভা সফল করতে সকাল থেকেই ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলা (শেরপুর, জামালপুর, নেত্রকোনা ও ময়মনসিংহ) থেকে কয়েক’শ বাস-ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহনে করে এসে শহরতলী চায়না মোড়, ঢাকা বাইপাস মোড়, ফুলবাড়ীয়া বাইপাস মোড়, খাগডহরে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ মোড় পর্যন্ত অবস্থান নেয়। পরে সেখান থেকে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে কয়েক কিলোমিটার পথ পাঁয়ে হেটে জনসভাস্থলে যোগদান করেন দলীয় নেতাকর্মীরা।

 

বিকাল ৩টায় প্রধানমন্ত্রীর জনসভাস্থল যেন জনসমুদ্রে রূপ নেয়। প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে বিশৃঙ্খলা এড়াতে নগরীতে সবধরনের রিক্সা, অটোরিক্সা, মোটরসাইকেল ও অন্যান্য যানবাহন বন্ধ রাখে পুলিশ। পুরো নগরীজুড়ে কয়েকস্তরে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

 

যেসব প্রকল্প উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থান করা হয়েছে :  ব্রহ্ম‏‏পুত্র নদের ওপারে নবগঠিত বিভাগের প্রস্তাবিত নতুন শহরের বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটার, বিভাগীয় স্টেডিয়াম ও পুরাতন ব্রহ্ম‏‏পুত্র নদ খনন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনসহ ৩৬০ মেগাওয়াট ডুয়েল ফুয়েল কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎ কেন্দ্র, বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল, হাইটেকপার্ক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, আরআরএফ-ময়মনসিংহ রেঞ্জ, পুরাতন ব্রহ্মপুত্র নদ খনন প্রকল্প, ময়মনসিংহ বিভাগীয় পুলিশ হাসপাতাল, ময়মনসিংহ সিভিল সার্জন কার্যালয়ের নির্মাণ প্রকল্প, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, গৌরীপুর উপজেলা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন, সদর উপজেলার সিরতায় ডা. মুশফিকুর রহমান শুভ মেমোরিয়াল ইসলামিক মিশন হাসপাতাল, নান্দাইল উপজেলায় মডেল মসজিদ নির্মাণ, হালুয়াঘাট উপজেলায় মডেল মসজিদ, ধোবাউড়া উপজেলায় মডেল মসজিদ ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অর্ন্তভূক্ত রয়েছে।

 

নেত্রকোনা জেলায় ১৭টি প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়, শ্যামগঞ্জ-জারিয়া-বিরিশিরি-দুর্গাপুর জেলা মহাসড়ককে জাতীয় মহাসড়ক মান উন্নয়ন প্রকল্প, নেত্রকোনা-বিশিউড়া-ঈশ্বরগঞ্জ (ভায়া গৌরীপুর) সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প, মোহনগঞ্জ উপজেলার হাইজদা বাঁধের ঝুঁকিপূর্ণ স্থানসমূহ শক্তিশালীকরণ প্রকল্প, নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালের ১০০ শয্যা থেকে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ প্রকল্প, নেত্রকোনা মেডিকেল কলেজ ও জেলার চল্লিশায় হেনা ইসলাম কলেজ।

 

জামালপুর জেলার ১৬টি উন্নয়ন প্রকল্পের মধ্যে রয়েছে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেসা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাদারগঞ্জ উপজেলায় শেখ হাসিনা স্পেশালাইজড জুট টেক্সটাইল মিল, মেলান্দহ উপজেলায় শেখ হাসিনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, মাদারগঞ্জে শেখ রাসেল টেক্সটাইল ইন্সটিটিউট ও জামালপুর জেলায় হাইটেক পার্ক।

 

শেরপুর জেলায় জামালপুর-শেরপুর-বনগাঁও সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প, শেরপুর-লঙ্গরপাড়া-শ্রীবর্দী সড়ক, নকলা বাইপাস সড়ক, শেরপুর জেলার সদর উপজেলায় কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (টিটিসি), শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী বাফার গোডাউন প্রকল্প ও শেরপুর-জামালপুর বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৬:৫৩ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ০৩, ২০১৮