|

ময়মনসিংহে প্রেমিক-প্রেমিকার আত্মহত্যা

ফুলবাড়ীয়া ব্যুর:  প্রেমের সম্পর্ক মেনে না নেওয়ায় ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়ায় প্রেমিক প্রেমিকা ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। তারা উভয়ই পলাশীহাটা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছে। পরীক্ষায় প্রেমিকা ফেল করলেও প্রেমিক পাশ করে। মরে যাবার সময় দু’জনেই হাতে লিখে গিয়েছে- পলাশ/আরিফা বাঁচলেও এক সাথে মরলেও এক সাথে।

 

মঙ্গলবার অনাকাঙ্খিত ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার নাঁওগাঁও ও হাতীলেইট গ্রামে।

 

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার ভোরে নাওগাঁও গ্রামের সাইফুল ইসলামের পুত্র ওমর ফারুক পলাশ নিজ ঘরে ধর্নার সাথে রশি দিয়ে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে। আত্মহত্যার কথা শুনে হাতিলেইট গ্রামের প্রবাসী নূরুল ইসলামের মেয়ে আরিফা খাতুন একই কায়দায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে।

 

মারা যাবার সময় পলাশ হাতে লিখে যায়, আরিফা বাঁচলেও এক সাথে মরলেও এক সাথে। আবার ঘটনা শুনে আত্মহত্যার আগে আরিফা তার হাতে লিখে যায়, পলাশ- ‘বাঁচলেও এক সাথে, মরলেও এক সাথে।’ চাঞ্চল্যকর এ আত্মহত্যার ঘটনায় কৌতুহলের শেষ নেই। তবে পলাশের পরিবার তাদের প্রেমের প্রস্তাব মেনে নিচ্ছিল নাসেও বলে জানা গেছে।

 

পলাশীহাটা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ এ.কে.এম শামছুল হক জানান, তারা দু’জনেই মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী ছিল। আরিফা পরীক্ষায় ফেল করেছে। প্রেমের ঘটনাটি তিনি আগে জানেন নি, তবে এখন শুনছেন।

 

থানা অফিসার ইনচার্জ শেখ কবিরুল ইসলাম জানান, যুগল আত্মহত্যার ঘটনা তিনি শুনেছেন, প্রাথমিকভাবে ধরে নেয়া হচ্ছে এটি প্রেম সংক্রান্ত ঘটনা। তবে তদন্ত করলে ঘটনার রহস্য পাওয়া যাবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:৩১ পূর্বাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৮