|

মেসি যে কারণে ভালো খেলতে পারেননি

লোক লোকান্তরঃ  হতাশ লিওনেল মেসি ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলে হারের পর ড্রেসিংরুমে হেঁটে যাওয়ার ছবিটিকে ২০১৮ বিশ্বকাপের অন্যতম প্রতীকী ছবিগুলোর একটি হিসেবে বলা হচ্ছে। পাঁচবারের বিশ্বসেরা খেলোয়াড় দুই ম্যাচে কোনো গোল করতে পারেননি। এমনকি আইসল্যান্ডের সঙ্গে একটি পেনাল্টিও মিস করেছেন।

 

২০০২-এর পর প্রথমবার বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকেই বিদায় নেয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে আর্জেন্টিনার। -খবর বিবিসি বাংলার।

 

৩০ বছর বয়সী মেসি আরেকটি বিশ্বকাপ হয়তো খেলতে পারবেন, কিন্তু অনেক ফুটবলবোদ্ধার মতেই রাশিয়া বিশ্বকাপেই আর্জেন্টিনার হয়ে কোনো মেজর শিরোপা জেতার শেষ সুযোগ তার সামনে।

 

ঘরোয়া লিগ ও কাপের ‘ডাবল’ জিতলেও বার্সেলোনায় শেষ মৌসুমটা খুব একটা ভালো যায়নি মেসির। চ্যাম্পিয়নস লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে টানা তৃতীয়বারের মতো বিদায় নিতে হয় তাদের। আর এ তিনবারই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের হাতে ওঠে শিরোপা।

 

মেসির এ মৌসুমের হতাশাজনক পারফরম্যান্সের অনেক কারণ থাকতে পারে।

 

শারীরিকভাবে ক্লান্ত

২০১৭-১৮ ইউরোপীয় মৌসুমে ৫৪টি ম্যাচ খেলেছেন মেসি, ২০১৪-১৫ মৌসুমের পর যা সর্বোচ্চ। পরিসংখ্যান ওয়েবসাইট ট্রান্সফার মার্কেটের তথ্যানুযায়ী, গত মৌসুমে ৪৪৬৮ মিনিট খেলেছেন তিনি।

 

আর গড়ে প্রতি ম্যাচে ৮২.৭ মিনিট মাঠে ছিলেন। মৌসুম শেষে বার্সেলোনার হয়ে ৪৫টি গোল আর ১৮টি অ্যাসিস্ট করেন মেসি।

 

ছোট একটি ইনজুরিতে ভুগছেন

 

চলতি বছরের এপ্রিলে আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সূত্রের বরাত দিয়ে দেশটির পত্রিকা ক্লারিন প্রতিবেদন প্রকাশ করে যে ডান পায়ের উরুর মাংসপেশিতে সামান্য চোট রয়েছে মেসির। যে কারণে দৌড়ানো ও গতি পরিবর্তন করতে কিছুটা সমস্যা হচ্ছে তার।

 

বিশ্বকাপের আগে ইতালি আর স্পেনের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে মেসি না খেললে বিষয়টি আলোচনায় আসে।

 

আর্জেন্টিনা দলের বাজে পারফরম্যান্স

রাশিয়া বিশ্বকাপের দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের বাছাইপর্বে আর্জেন্টিনার পারফরম্যান্স ছিল দারুণ হতাশাজনক। নানা সমীকরণ শেষে বাছাইপর্বের শেষ ম্যাচে বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলা নিশ্চিত করতে সক্ষম হয় তারা।

 

বাছাইপর্বে ৭ গোল করে মেসি আর্জেন্টিনার সর্বোচ্চ স্কোরার হলেও সমর্থক ও গণমাধ্যমের ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়তে হয় তাকে।

 

গত বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা ফাইনাল খেললেও তাদের শেষ বিশ্বকাপ বিজয় ছিল ১৯৮৬ সালে।

 

২০০৪ আর ২০০৮-এ পরপর দুবার অলিম্পিক শিরোপা জিতলেও ১৯৯৩ সালের কোপা আমেরিকার পর গত ২৫ বছরে কোনো মেজর টুর্নামেন্টের শিরোপা জিততে পারেনি তারা।

 

রোনাল্ডোর সঙ্গে তুলনার মানসিক চাপ

গত প্রায় এক দশক ধরে বিশ্বফুটবলে মেসির একমাত্র তুলনা ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। এবারের বিশ্বকাপে মেসির ঠিক বিপরীত ফর্মে রয়েছেন তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী।

 

স্পেনের বিপক্ষে দুর্দান্ত এক হ্যাটট্রিক করে রোনাল্ডোর রাশিয়া বিশ্বকাপ শুরু হয়, যেখানে ফ্রি কিক থেকে নেয়া রোনাল্ডোর তৃতীয় গোলটি বিশ্বকাপের ইতিহাসের অন্যতম স্মরণীয় গোলের একটি হয়ে থাকবে।

 

দ্বিতীয় ম্যাচেও রোনাল্ডোর একমাত্র গোলেই মরক্কোকে হারায় পর্তুগাল।

 

এবারের টুর্নামেন্টে রোনাল্ডো যেখানে অপ্রতিরোধ্য ফর্ম প্রদর্শন করছেন, সেখানে পুরো আসরে মেসির বলার মতো মুহূর্ত বলতে আইসল্যান্ডের সঙ্গে পেনাল্টি মিস।

 

আর মেসি যা এখনও করতে পারেননি দুবছর আগে ইউরো-২০১৬তে দলকে শিরোপা জিতিয়ে, তাই করে দেখিয়েছেন রোনাল্ডো।

সর্বশেষ আপডেটঃ ২:১০ অপরাহ্ণ | জুন ২২, ২০১৮