|

ব্রাজিলকে বিশ্বকাপ জেতাতে কোচ তিতে ও তার ছেলের অভিনব কৌশল

লোক লোকান্তরঃ  কার্লোস দুঙ্গাকে ছাঁটাই করার পর তার জায়গায় দায়িত্ব পান আদেনোর লিওনার্দো বাচ্চি, সংক্ষেপে তিতে। নতুন এই কোচের ছোঁয়ায় ব্রাজিল ফিরে পেতে থাকে হারানো ছন্দ। রাশিয়া বিশ্বকাপকে সামনে রেখে পুরনো সেই আবহ ফিরে পায় দলটি। বিশ্বকাপে ব্রাজিল বরাবরই দাপুটে। তার প্রমাণ, সর্বোচ্চ পাঁচবার বিশ্বকাপ শিরোপা উচিয়ে ধরেছে লাতিন এই দলটি।

 

আর পাঁচ দিন পর পর্দা উঠতে যাওয়া রাশিয়া বিশ্বকাপেও হট ফেভারিট তারাই। আর এই মিশন সফল করতে ব্রাজিল কোচ তিতে, তার ছেলে ম্যাথিউস বাচ্চিকে সঙ্গে নিয়ে এঁটেছেন অভিনব এক কৌশল।

 

কৌশলটা হলো – খেলা চলাকালীন বাবা তিতে ডাগআউটে থাকলেও ছেলে ম্যাথিউস তখন খেলা দেখবেন স্টেডিয়ামের উপরের কোনো একটা জায়গা থেকে। সেখান থেকে তিনি তার বাবাকে ম্যাচের নানা ছবি ও সেই সংক্রান্ত তথ্য পাঠাবেন একটি ট্যাবলেটের মাধ্যমে। ছেলের পাঠানো তথ্যগুলো নিয়ে তিতে তার রণনীতির পরিবর্তন আনবেন, কখনো বা সংশ্লিষ্ট ফুটবলারকে তার ভুল ধরিয়ে দেবেন।

 

অভিনব এই পদ্ধতির প্রয়োগ ফিফার অনুমতি নিয়েই করা হচ্ছে। তবে একেবারে স্টেডিয়ামের উপর থেকে যে ম্যাচের চুলচেরা বিশ্লেষণ করা হবে – এই বুদ্ধিটা এসেছে তিতের মাথা থেকেই। এ জন্য তিনি তার ছেলের জন্য একটি বিশেষ ট্যাবলেট তৈরি করিয়েছেন। যা ব্যবহার করে স্টেডিয়ামের উপরিভাগে বসে দুরূহ সব কোণ থেকে ম্যাচের বিভিন্ন ঘটনার ছবি নিবেন তিতের ছেলে ম্যাথিউস। খেলা চলাকালীন যা পেয়ে যাবেন তিতেও।

এরই মধ্যে ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে দেখা গেছে, স্টেডিয়ামের একেবারে উপরের দিকে বসে রেডিওলিংকের সাহায্যে ম্যাথিউস টেকনিক্যাল দলের সদ্যস ক্ল্যাবের জাভিয়ের কাছে ছবি ও তথ্য পাঠাচ্ছেন। সেখান থেকে বাছাই করা তথ্য ও ছবিগুলো ক্ল্যাবে পাঠিয়ে দেন তিতেকে। তবে সেদিন রেডিওলিংক ব্যবহার করলে বিশ্বকাপ চলাকালীন ম্যাচে তিতের ছেলের হাতে থাকবে দুটি ট্যাবলেট। যার একটি থাকবে ম্যাথিউসের কাছে, আরেকটি তিতের কাছে।

 

এই দুটি ট্যাবলেট অবশ্য বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী ৩২টি দলকেই দিয়েছে ফিফা। ট্যাবলেটের মধ্যে পারফরম্যান্স বিশ্লেষণ করার ব্যবস্থা থাকবে। বলা যায়, পুরো ব্যাপারটাই রণনীতি সংক্রান্ত। সঙ্গে কোনো ফুটবলারের ভুল পাস করার মতো ঘটনা ঘটলেও তার ময়নাতদন্ত হয়ে যাবে সেই ছোট্ট ট্যাবলেটে। প্রযুক্তির সঙ্গে আরেকটু ভিন্নভাবনার সাহায্যে তিতে এটাকে পরিণত করেছেন অভিনব কৌশলে।

 

অবশ্য এটা কিন্তু একেবারেই নতুন কিছু নয়। আন্তর্জাতিক ফুটবলে এর আগেও এমন অভিনব কৌশল ব্যবহার করা হয়েছে। বায়ার্ন মিউনিখের কোচ থাকাকালীন পেপ গার্দিওলাকেও দেখা গেছে এমন কৌশল নিতে। যদিও তিনি নিয়েছিলেন খেলার দুই অর্ধের বিরতির মাঝে, তাও আবার লকার রুমে বসে। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলা চলাকালীন ডাগআউটে বসেই এমন কৌশল নেবেন তিতে।

 

প্রায় আকাশ থেকে ম্যাচের মুহূর্তকে নিখুঁত ভাবে তুলে ধরার তিতের এমন ভাবনা নিঃসন্দেহে বৈপ্লবিক। দেখার বিষয় বাপ-বেটার এই অভিনব কৌশলে ব্রাজিল কতটা লাভবান হয়!

সর্বশেষ আপডেটঃ ৬:২৫ অপরাহ্ণ | জুন ০৯, ২০১৮