|

ময়মনসিংহে যাত্রী সেজে ইজিবাইক ছিনতাই

গফরগাঁও প্রতিনিধি:   একদল সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারী যাত্রী সেজে একটি ব্যাটারিচালিত ইজি বাইক ছিনতাই করে। ইজিবাইক চালকের সাহসিকতায় রাজিব (২৫) নামের এক ছিনতাইকারী আটক হলেও ইজিবাইকটি এখনো উদ্ধার হয়নি।

 

রোববার রাত সাড় ৮টার দিকে ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার খারুয়া বড়াইল গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

 

ছিনতাইকারীকে গণপিটুনীর পর পুলিশ তাকে উদ্ধার প্রথমে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। আটক ছিনতাইকারী রাজিব উপজেলার ধামাইল গ্রামের ফালান মিয়ার ছেলে।

 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলামুখী স্কুলের বাজার ইজিবাইক স্ট্যান্ডে গত রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে যাত্রী সেজে চার ছিনতাইকারী পাশের খারুয়া বড়াইল যেতে চেয়ে মাহবুব হাসানের ইজিবাইক ভাড়া নেয়। পরে ইজিবাইকটি স্কুলের বাজার ও খারুয়া বড়াইল সড়কের মাঝামাঝি আসতেই ছিনতাইকারী রাজিব ইজিবাইক চালক মাহবুবের গলায় চাকু ধরে।

 

এ সময় অন্য ছিনতাইকারীরা চালকের সঙ্গে থাকা মানিব্যাগ ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। একপর্যায়ে চালক মাহবুব ছিনতাইকারী রাজিবকে জাপটে ধর পাশের ধান ক্ষেতে পড়েন। তখন মাহবুবের আত্মচিৎকারে আশপাশের লোকজন দৌড়ে আসতে শুরু করেন।

 

এ সময় অন্য ছিনতাইকারী তার চিৎকার শুনে আশপাশের মানুষ এগিয়ে আসতে থাকলে অবস্থা বেগতিক দেখে গাড়িতে থাকা তিন ছিনতাইকারী উথুরী গ্রামের জনু মিয়ার ছেলে মহন মিয়া (২৬), বাসুটিয়া গ্রামের রানা মিয়া (২৫) ও ধামাইল গ্রামের জহিরুল (২৫) ইজিবাইক নিয়ে পালিয়ে যায়।

 

এ সময় স্থানীয় জনতা আটক ছিনতাইকারীকে গণধোলাই দেয়। খবর পেয়ে পাগলা থানা পুলিশ আহত ছিনতাইকারীকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

 

পাগলা থানার ওসি মোখলেছুর রহমান আকন্দ বলেন, ‘ছিনতাই হওয়া ইজিবাইকটি উদ্ধারে পুলিশ কাজ করছে। পাশাপাশি বাকি ছিনতাইকারীকে ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

ছবিঃ প্রতীকী

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৫৮ পূর্বাহ্ণ | জুন ০৫, ২০১৮