|

৬৪৯১ সালের বাসিন্দা টাইম মেশিনের বলে ২০১৮ তে! (ভিডিও)

লোক লোকান্তরঃ  এখন থেকে সাড়ে চার হাজার পর তার জন্ম। নাম রাখা হয় জেমস অলিবার। ধীরে ধীরে বেড়ে উঠে তিনি এখন টগবগে যুবক। কিন্তু টাইম মেশিনের গণ্ডগোলে চলে এসেছেন ২০১৮ সালে।

 

জেমস অলিভারের দাবি একুশ শতকে একটা কাজে তাকে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু সময়যান খারাপ হয়ে যাওয়ায় তিনি তার পরিজনের কাছে ফিরতে পারছেন না। তার টাইম মেশিন বিগড়ে যাওয়াতেই তিনি ২০১৮ সালে আটকে পড়েছেন।

 

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘মিরর’ এ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জেমস অলিভার নামে ওই যুবকের দাবি, তিনি ৬৪৯১ সালের বাসিন্দা।

 

প্যারানর্মালবিষয়ক ইউটিউব চ্যানেল অ্যাপেক্স টিভি, জেমস অলিভারের এই দাবির সত্যতা নিরূপণ করার জন্য তাকে এক লাই ডিটেক্টর মেশিনের সামনে বসায়। তাকে বেশকিছু প্রশ্ন করা হয়। আশ্চর্য বিষয় হচ্ছে, তিনি সব প্রশ্নেই পাস করে যান।

 

যে ভিডিওটি অ্যাপেক্স টিভি আপলোড করেছে, তাতে আগন্তুকের মুখ ব্লার করা রয়েছে। তার উচ্চারণ শুনে মনে হচ্ছে তিনি হয় মার্কিনি, নয়তো অস্ট্রেলিয়ান। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে তিনি যা জানিয়েছেন তার সারমর্ম হচ্ছে… তাদের সময়ে বছরের হিসাব এখনকার থেকে আলাদা। তাদের বছর আরও দীর্ঘ।

 

তাদের সময়ে পৃথিবী সূর্য থেকে অনেকটাই দূরে সরে গিয়েছে। ফলে সময়ের মাপ আলাদা হয়ে পড়েছে। তাদের সময়ে প্রতিভাবান গণিতজ্ঞের সংখ্যা প্রচুর।

 

২০১৮ সালের প্রধানতম বিপর্যয় উষ্ণায়ন।

 

তাদের সময়ে অন্য অনেক গ্রহের বাসিন্দাদের সঙ্গেই যোগাযাগ সম্ভব হয়েছে। মানুষের চাইতে ঢের উন্নত প্রাণীর সন্ধানও তারা জানেন।

 

তার নিজের বেশ কিছু ভিনগ্রহী বন্ধু রয়েছে। তারা বেশ ভালো লোক। তার সময়ের সব কথা তিনি বলতে পারবেন না। এ বিষয়ে তার ঊর্ধ্বতম কর্তৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞা কার্যকর রয়েছে।

 

এসব দাবিকে লাই ডিটেক্টর মেশিনে ফেলে দেখা গিয়েছে, প্রতি ক্ষেত্রেই যন্ত্র তার বক্তব্যকে ‘সত্য’ বলে সিলমোহর দিয়েছে। ঘটনা যাই হোক ভিডিও আপলোডের পরে তা ভাইরাল হয়ে গিয়েছে।

 

ভিডিওঃ

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:২০ পূর্বাহ্ণ | জুন ০৫, ২০১৮