|

পার্লার ও স্পা’র আড়ালে যৌন ব্যবসা, ছদ্মবেশে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার ৫৪

লোক লোকান্তরঃ  মোবাইল নম্বর কাজে লাগিয়ে পার্লার ও স্পা’র আড়ালে যৌন ব্যবসা চালিয়ে আসছিলো কয়েকটি চক্র। আর তাদের আটকাতে ছদ্মবেশে অভিযান চালিয়ে ৫৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

 

কলকাতায় দেওয়ালে ম্যাসাজ পার্লারের বিজ্ঞাপন, তাতে সুন্দরীদের হাতছানি। পোস্টারের ছবিতে দেখা যাচ্ছে, এক নারী ম্যাসাজ করছেন এক পুরুষকে। নিচে দেওয়া কয়েকটি ফোন নম্বর। যার মাঝে সচল কয়েকটি।

 

এসব দেখে সন্দেহ হয় গোয়েন্দা পুলিশের। আর সেই মোবাইল নম্বরগুলির সূত্র ধরেই শুরু হয় তদন্ত। পার্লারে  ছদ্মবেশে হানা দেন গোয়েন্দারা। আর তাতেই গোয়েন্দারা নিশ্চিত হন যে, কলকাতার বেশ কয়েকটি জায়গায় ম্যাসাজ পার্লারের আড়ালে রমরমিয়ে চলছে মধুচক্র ও যৌন ব্যবসা।

 

তাই শনিবার রাতে লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগ ও স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ) এর কর্মকর্তারা একসঙ্গে অভিযান চালান কলকাতার চারটি ও বাগুইআটির একটি ম্যাসাজ পার্লারে। এঅভিযানে মোট ৫৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়ে অনেকে। আটককৃতদের মাঝে ৩৬ জন মহিলা।

 

আর ১৮ জন পুরুষের মধ্যে কেউ ম্যানেজার, কেউ খদ্দের। পার্লারে খদ্দের নিয়ে আসার জন্য দালালের কাজ করে অনেকে।

 

পুলিশ জানিয়েছে, টালিগঞ্জ থানা এলাকার শরৎ বসু রোডের একটি ‘ফ্যামিলি স্পা’ থেকে ধরা পড়েছে ৮ মহিলা ও দু’জন পুরুষ। লেক থানা এলাকার যোধপুর পার্কের একটি আবাসনের মধ্যে পার্লার থেকে গ্রেপ্তার হয় চার মহিলা ও চার পুরুষ। গড়িয়াহাটের ডোভার লেনের একটি বাড়ির তিনতলায় চলা পার্লার থেকে ধরা পড়ে ৯ জন মহিলা ও ৬ জন পুরুষ। কসবার শান্তিপল্লির একটি বাড়ির তিনতলা থেকে গ্রেপ্তার হয় ৯ জন মহিলা ও ৫ জন পুরুষ।

 

ধৃতদের জেরা করা বাগুইআটি বাজার এলাকার একটি বাড়ির দোতলায় চলা পার্লার ও স্পা-তে চালানো হয় তল্লাশি। সেখান থেকে পাঁচজন মহিলা ও তিনজন পুরুষকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 

পুলিশ জানিয়েছে, খদ্দেররা ওই ফোনের ফাঁদে পা দিলেই তাঁদের ডেকে নিয়ে আসা হত ওই পার্লার বা স্পা-তে। মধুচক্রের আসরে থাকা যৌনকর্মীকে পছন্দের পর আলাদা কিউবিকলে পাঠানো হত যুগলকে। শহরে আরও কয়েকটি পার্লার ও স্পার উপর নজরদারি রাখা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। সুত্রঃ সাংবাদ প্রতিদিন

 

ছবিঃ প্রতীকী

সর্বশেষ আপডেটঃ ১১:১০ পূর্বাহ্ণ | মে ২৮, ২০১৮