|

বাজারের সেরা পাঁচ ফোন

লোক লোকান্তরঃ  এতো এতো ফোনের মধ্যেই কোন ফোনটি আপনার জন্য আদর্শ তা বুঝতে সমস্যা হচ্ছে আপনার ?  চলুন তাহলে দেখে নেই বাজারের সেরা পাঁচ ফোন।

 

ওয়ান প্লাস সিক্স
লেটেস্ট ওয়ানপ্লাস ৬ এ রয়েছে ডুয়াল রিয়াল ক্যামেরা সেট আপ। প্রাইমারি সেন্সরটি ১৬ মেগাপিক্সেল ও সেকেন্ডারি ২০ মেগাপিক্সেল সেন্সর রয়েছে এই রিয়ার ক্যামেরায়। প্রাইমারি ক্যামেরাতে অপ্টিক্যাল ও ইলেকট্রনিক দুই ইমেজ স্টেবিলাইজেশনের সুবিধা রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে একটি ১৬ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। এই ক্যামেরায় তোলা যাবে ৪৮০ ফ্রেম পার সেকেন্ডে স্লো মোশন ভিডিও।

 

নতুন আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্সের মাধ্যমে ফ্রন্ট ক্যামেরায় তোলা যাবে পোট্রেট মোড। এছাড়াও এই ক্যামেরায় রয়েছে ফেস আনলকের ফিচার। এর মাধ্যমে মাত্র ০.৪ সেকেন্ডে আনলক হয়ে যাবে আপনার ফোন।

 

ওয়ানপ্লাস ৬ এ রয়েছে 3300 এমএএইচ ব্যাটারি। এর সঙ্গেই রয়েছে কোম্পানির জনপ্রিয় ড্যাশ চার্জিং টেকনোলজি। কোম্পানির দাবি মাত্র ৩০ মিনিটের চার্জে এই ফোন সারাদিন চলতে সক্ষম।

 

হনর টেন
এই ফোনটিতে রয়েছে ৫.৮৪ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। ডিসপ্লের অ্যাসপেক্ট রেশিও ১৯:৯। এই ডিসপ্লেতে রয়েছে মিনিমাম বেজেল আর টপ নচ। হনর টেনের ভেতরে রয়েছে অক্টাকোর হাইসিলিকন কিরিন ৯৭০ চিপসেট। এই চিপসেটে রয়েছে চারটি ২.৩৬ গিগাহার্জের কর্টেক্স-এ৭৩, আর চারটি ১,৮ গিগাহার্জের কর্টেক্স-এ৫৩ কোর।

 

এছাড়াও আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স প্রসেসিং এর জন্য রয়েছে একটি ডেডিকেটেড নিউরাল প্রসেসিং উইনিট। এর সঙ্গেই নতুন এই ফ্ল্যাগশিপে রয়েছে ৬ জিবি র‌্যাম আর ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। এছাড়াও অন্য একটি ভেরিয়েন্টে রয়েছে ৬ জিবি র‌্যাম আর ৬৪ জিবি স্টোরেজ। ছবি তোলার জন্য হনর টেনে রয়েছে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা সেট আপ। রিয়ার ক্যামেরার প্রাইমারি সেন্সরটি ১৬ মেগাপিক্সেল আর সেকেন্ডারি সেন্সরটি ২৪ মেগাপিক্সেল মনোক্রোম সেন্সর।

 

এই ক্যামেরা লো লাইটে ভালো ছবি তুলবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এছাড়াও হনর টেনের সামনে রয়েছে ২৪ মেগাপিক্সেল ফ্রন্ট ক্যামেরা। এছাড়াও নতুন এই ফোনে থাকছে ইউএসবি টাইপ সি, ৩.৫মিমি হেডফোন জ্যাক। আর এই ফোনে প্রিলোডেড থাকবে লেটেস্ট অ্যানড্রয়েড ৮.১ ওরিও। ফোনের ব্যাটারি ৩৪০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের।

 

নকিয়া ৬.১
নকিয়া ৬.১ এ রয়েছে ৫.৫ ইঞ্চি ফুল এইচডি ডিসপ্লে। এছাড়াও ফোনের ভিতরে রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৬৩০ প্রসেসর, ৪ জিবি র‌্যাম আর ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। যদিও মাইক্রোএসডি কার্ডের মাধ্যমে ১২৮ জিবি পর্যন্ত বাড়িয়ে নেওয়া যাবে এই ফোনের মেমোরি।

 

নকিয়া ৬.১ এ প্রি-লোডেড থাকবে লেটেস্ট অ্যানড্রয়েড ওরিও ৮.১। ফোনটিতে রয়েছে ১৬ মেগাপিক্সেল ডুয়াল রিয়ের ক্যামেরা। এছাড়াও রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা। এর সঙ্গে রয়েছে এলটিই, ওয়াইফাই ও অন্যান্য সব কানেক্টিভিটির সুবিধা।

 

হুয়াওয়ে পি ২০ লাইট
ফোনটিতে রয়েছে প্রি-লোডেড অ্যান্ড্রয়েড ওরিও ৮.০। এতে আছে ৫.৮৪ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস ডিসপ্লে। ডিসপ্লের অ্যাসপেক্ট রেশিও ১৯:৯। এই ফোনের ভিতরে রয়েছে হাইসিলিকন কিরিন ৬৫৯ চিপসেট। সঙ্গে রয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম আর ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ। ফোনটিতে রয়েছে ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরা।

 

প্রাইমারি সেন্সর ১৬ এমপি, ২ এমপি সেকেন্ডারি ক্যামেরা রয়েছে এই ডুয়াল রিয়ার ক্যামেরায়। এছাড়াও রয়েছে ২৪ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। সেলফি ক্যামেরায় রয়েছে অ্যাপেলের অ্যানিমজির মতো এআর ইমোজি ফিচার।

এছাড়াও এই ফোনে রয়েছে থ্রিডি ফেস রিকগনিশন ফিচার। ব্যাকআপের জন্য এতে ৩০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার আওয়ারের।

 

রিয়েলমি ওয়ান
রিয়েলমি ১ এর পিছনে রয়েছে ফাইবার বডি। যার ফিনিশ খানিকটা হীরার মতো দেখতে। নতুন এই ফোনের সামনে রয়েছে ৬ ইঞ্চির ফুল এইচডি প্লাস এলসিডি ডিসপ্লে। ডিসপ্লের অ্যাসপেক্ট রেশিও ১৮:৯।

 

৪০৩ পিপিয়াই এর এই ডিসপ্লে তে দারুন শার্পনেস পাওয়া যাবে। ফোনের ভিতরে রয়েছে মিডিয়াটেক এমটি৬৭৭১ প্রসেসর।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:১৮ পূর্বাহ্ণ | মে ২৭, ২০১৮