|

ময়মনসিংহে মার খেয়ে থানায় অভিযোগ দেয়ায় প্রতিপক্ষের কান্ড!

গফরগাঁও প্রতিনিধি, ময়মনসিংহঃ   ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে বাড়ির সীমানা নিয়ে বিরোধের জের ধরে বৃদ্ধ রুহুল আমিন ও তার স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম করে প্রতিপক্ষ। এ ঘটনায় গত মঙ্গলবার রাতে আহত দম্পতির ছেলে ইব্রাহীম বাদী হয়ে গফরগাঁও থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

 

গত বুধবার সকালে থানায় অভিযোগ দায়েরের খবর পেয়ে রুহুল আমিন ও তার ছেলের পালিত ২৫টি মুরগি বিষ খাইয়ে মেরে ফেলে বলে অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষ আল আমিন, হারেজ, তৈয়ব আলী ও হাইয়ু মিয়া। এ সময় গরু-ছাগল মেরে ফেলাসহ বাড়ি-ঘর জ্বালিয়ে দেয়ার হুমকিও দেয়া হয়।

 

থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, চরকামারিয়া ভাটিপাড়া গ্রামের রুহুল আমিনের সাথে বাড়ির সীমানা নিয়ে প্রতিবেশি আল আমিন, হারেজ, তৈয়ব আলী ও হাইয়ু মিয়ার বিরোধ চলে আসছিল।

 

এ নিয়ে গত শনিবার সকালে সাথে ঝগড়া বিবাদের এক পর্যায়ে বেদেনাকে মারধর করে প্রতিবেশি আল আমিন ও তার লোকজন। এ সময় স্ত্রীকে বাঁচাতে বৃদ্ধ রুহুল আমিন এগিয়ে গেলে তাকেও কুপিয়ে আহত করে তারা। পরে বৃদ্ধ রুহুল ও তার স্ত্রী বেদেনাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে গফরগাঁও উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

 

এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে আহত দম্পতির ছেলে ইব্রাহীম বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। গতকাল বুধবার সকালে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে এ খবর পেয়ে বিবাদীরা বৃদ্ধ রুহুল ও তার ছেলের ২৫টি মুরগি বিষ খাইয়ে মেরে ফেলে।

 

বৃদ্ধ রুহুল আমিন হাসপাতালের বেডে শুইয়ে অভিযোগ করে বলেন, প্রথমে আমাদেরকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে আহত করেছে বিবাদীরা। এ নিয়ে থানায় অভিযোগ করায় আমাদের ২৫টি মুরগি বিষ দিয়ে তারা মেরে ফেলে। এছাড়াও হুমকি দিয়ে যায় থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ তুলে না নিলে গরু-ছাগল ও বাড়ি-ঘর পুড়িয়ে দিবে।

 

এ ব্যাপারে গফরগাঁও থানার ওসি আব্দুল আহাদ খান বলেন, স্বামী-স্ত্রীকে মারধরের ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে অভিযোগ পেয়েছি। তবে বিষ দিয়ে মুরগি নিধনের বিষয়ে আমি অবগত নই। বিষয়টির খোজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:২০ অপরাহ্ণ | মে ১২, ২০১৮