|

ময়মনসিংহে গ্রামের বাড়িতে পা হারানো রোজিনার লাশ, এলাকায় শোকের ছায়া

ধোবাউড়া প্রতিনিধিঃ  রাজধানীর বনানীতে সড়ক দূর্ঘটনায় পা হারানো রোজিনার লাশ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ময়মনসিংহে ধোবাউড়ায় নিজ গ্রামে। এতে নিহতের এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। শোকে বাকরদ্ধ স্বজনরা অজ্ঞান হয়ে যাচ্ছেন। লাশের পাশে কান্নায় ভেঙ্গে পড়ছেন রোজিনার মা।

 

রোজিনা ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার ঘোষগাও গ্রামের রাবেয়া খাতুন ও রশিদ মিয়ার সন্তান। গত ২০ এপ্রিল ঢাকা বনানীতে রাস্তা পার হওয়ার সময় বিআরটিসি দ্বীতল বাসের চাপায় ডান পা হারায় রোজিনা(১৮)। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে নেওয়া হয়।

 

হাসপাতালে প্রথমবার অস্ত্রোপচারে রোজিনার ডান পা উরু থেকে কেটে ফেলা হয়। কিন্তু সেখানে পচন ধরায় আবারও অস্ত্রোপচার করে বাকি অংশটুকু ফেলে দিতে হয়। এর পর থেকে ক্রমে তার অবস্থা খারাপের দিকে যেতে থাকে। ৯ দিন মৃত্যুর সাথে লড়ে রবিবার সকাল ৬.৩০ টায় রোজিনা চলে যায় না ফেরার দেশে।

 

সন্ধ্যায় নিহত রোজিনার লাশ গ্রামের বাড়ি ধোবাউড়া উপজেলার ঘোঁষগাও ইউনিয়নের ঘোনাপাড়া গ্রামে নিয়ে আসা হয়েছে। একই দিন রাতে এশার নামাজের পর জানাজা নামাজ শেষে রোজিনাকে বাড়ির পাশে সামাজিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।

 

দিনমজুর রসুল মিয়ার মেয়ে রোজিনা ছোটবেলা থেকে ঢাকায় সাংবাদিক ইফতেকার রেজার বাসায় কাজ করতো। ৭ ভাই বোনের ২য় সন্তান রোজিনা। বড় বোনসহ ঢাকায় কাজ করতো রোজিনা। বাকীরা বড়িতে থাকে। পরিবারের কোন জমি না থাকায় খাস জমিতে ঘর তোলে বসবাস করতো রোজিনার পরিবার।

 

ছবিঃ লোক লোকান্তর

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৩৫ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২৯, ২০১৮