|

বাংলাদেশের জন্য প্রস্তুত রাখা ২০ টন মরা পশুর মাংস পশ্চিমবঙ্গে জব্দ

লোক লোকান্তরঃ  পশ্চিমবঙ্গে একের পর এক মরা মুরগি, মরা পশুর মাংসের বিক্রেতারা ধরা পড়ছে। গত কয়েক দিন ধরে চলছে পুলিশি অভিযান। ব্যাপক আকারে মরা পশুর মাংস উদ্ধার করেছে কলকাতা পুলিশ। পচা মাংসের কারবারে উত্তাল হয়ে উঠেছে পুরো রাজ্য।

 

এসব পচা মাংস বাংলাদেশ ও নেপালে পাচার হবে বলে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে মাংস ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।

 

জানা গেছে, ২৫ এপ্রিল মরা পশুর মাংস পুলিশের নজরে আসে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবার এলাকায় অভিযান চালিয়ে গোডাউন থেকে ২০ টন মরা পশুর মাংস বাজেয়াপ্ত করে ভারতীয় পুলিশ। এ কাজে জড়িত হাওড়া ও নদীয়া জেলা থেকে মোট ১৪ জন ব্যবসায়ীকে আটক করে পুলিশ। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ আরও প্রচুর পরিমাণে মরা পশুর মাংসের সন্ধান পায়।

 

মাংস ব্যবসায়ীদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, বাংলাদেশ ও নেপালের মাংস ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি হতো। কলকাতার অনেকেই এ কারবারের জড়িত।

 

এদিকে পশিচমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই মরা মাংসের বিষয়ে ভীষণ রাগান্বিত। তিনি বলেছেন, এসবের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার করা হবে। সতর্কতামূলক প্রত্যেক জেলায় অতিরিক্ত পুলিশি নজরদারি রাখা হয়েছে।

 

মাংস পাচারের ঘটনায় গয়েশপুর পৌরসভার প্রাক্তন সিপিআই এম কাউন্সিলর মানিক মুখোপাধ্যায়কে নদীয়ার কল্যাণী থেকে গ্রেফতার করেছে বজবজ থানা পুলিশ।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:২০ পূর্বাহ্ণ | এপ্রিল ২৯, ২০১৮