|

ময়মনসিংহে এডিশনাল এসপির ভাতিজা ও পুলিশের উপ পরিদর্শকের ভাইকে কুপিয়ে হত্যা

গফরগাঁও প্রতিনিধি:  ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে বাড়ি যাওয়ার রাস্তার বিরোধকে কেন্দ্র করে এডিশনাল এসপির ভাতিজা ও পুলিশের উপ পরিদর্শকের ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বিরোধীরা। ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার মশাখালী ইউনিয়নের মুখী বেলাব গ্রামে।

 

ঘটনার পর ঘাতক বাবা ও ছেলে পালিয়ে গেছে। নিহত শফিকুল ইসলাম শাহীন (৩৩) বেলাব গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মগবুল হোসেনের ছেলে ও কিশোরগঞ্জে পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডিশনাল এসপি) জামাল উদ্দিনের  ভাতিজা। হত্যাকান্ডের খবর পেয়ে গফরগাঁও সার্কেলের এডিশনাল এসপি রায়হানুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

 

নিহতের পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বাড়ি যাওয়ার রাস্তা নিয়ে মগবুল হোসেন ও তার ছোট ভাই সৈরত আলীর দীর্ঘদিন যাবত বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে মগবুলের ছেলে শাহীনের সাথে চাচা সৈরত আলীর বাক-বিতন্ডা হয়।

 

এক পর্যায়ে সৈরত আলী ও তার ছেলে রাকিব শাহীনকে এলোপাথারি কুপিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে। নিহতের অপর ভাই সাইফুল ইসলাম সুমন পুলিশের উপ পরিদর্শক। সে পিবিআইয়ে কর্মরত। তার ছোট চাচা পুলিশ কর্মকর্তা জামাল উদ্দিন কিশোরঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এডিশনাল এসপি)।

 

স্থানীয়রা নাম প্রকাশ না করে জানান, শাহীনকে কুপিয়ে হত্যার পর বাড়ি ফিরে ঘাতক বাবা-ছেলে গোসল করে। পরে খাবার খেয়ে পরিবারের অন্য সদস্যদের নিয়ে পালিয়ে যায়।

 

এ ব্যাপারে পাগলা থানার ওসি মোখলেছুর রহমান আকন্দ বলেন, লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। এখন পোর্স্ট মটেমের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে।

 

এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কেউ অভিযোগ করেছি। লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে হত্যা মামলা রুজু হবে। হত্যার পর পরেই ঘাতক বাবা-ছেলে পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করা সম্ভব হয়নি।

 

ছবিঃ লোক লোকান্তর

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:৩৪ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ১৯, ২০১৮