|

ময়মনসিংহে পথচারীর পকেট লুটকালে এক পুলিশসহ তিনজন গ্রেফতার, মামলা

স্টাফ রিপোর্টারঃ  ময়মনসিংহ পুলিশে অপরাধীরা আতংকগ্রস্থ অবস্থায় রয়েছে। অপরাধ করে কোর প্রত্রিয়ায়ই পার পাওয়া যাবেনা এ শংকায় অনেকেই তাদের চরিত্র পরিবর্তন করতে শুরু করেছে। পুলিশের এক সদস্য ডিবি পুলিশ পরিচয়ে সাধারণ মানুষের পকেট কেটে অর্থ লুটে নেওয়ায় গ্রেফতারসহ দ্রুত বিচার আইনে মামলা হওয়ায় গত দুদিন ধরে জেলা পুলিশে এ আলোচনার ঝড় চলছে।

 

প্রাপ্ত তথ্যে জানা ঈশ্বরগঞ্জ রায়ের বাজার তদন্ত কেন্দ্রর পুলিশ কন্সটেবল আমিরুল ইসলাম তার দুই সহযোগী হালুয়াঘাটের সুমন সরকার ও মুক্তাগাছার জুয়েলকে সাথে নিয়ে গত ১৩ এপ্রিল রাতে শহরের আকুয়া ওয়ারলেস গেইট এলাকায় দুই পথচারীর পথরোধ করে।

 

এ সময় পুলিশ কন্সটেবুল আমিরুলের নেতৃত্বে চক্রটি নিজেদেরকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে দুই পথচারীকে মাদক ব্যবসায়ী বলে হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে পথচারী আশিকুর রহমান বাবুর পকেট থেকে চারশত টাকা এবং তার সহকর্মী আল আমিনের কাছ থেকে দেড়শত টাকা লুটে নেয় কথিত ডিবি পুলিশ পরিচয় দানকারী চক্রটি।

 

পথচারী আশিকুর রহমান বাবু ও তার সহকর্মী উপায়ান্তর না পেয়ে ডাক চিৎকার দিলে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদেরকে ঘেরাও করে। এ সময় সুমন সরকার নামের একজন দৌড়ে পালানোর চেষ্ঠা করলে স্থানীয়রা ধাওয়া করে তাকে আটক করে। এ সময় সুমন সরকার গণধোলাইয়ের স্বিকার হয়। এদিকে কথিত ডিবি পুলিশ পরিচয় দানকারী ঐ তিন প্রতারককে স্থানীয়বাসী আটক করে কোতোয়ালী পুলিশ খশবর দেয়।

 

খবর পেয়ে ৩নং ফাঁড়ির ইনচার্জ মনিরুল ইসলামসহ অন্যান্য গিয়ে আটককৃতদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। এ ঘটনায় পথচারী আশিকুর রহমান বাবু লিখিত অভিযোগ করলে কোতোয়ালী মডেল থানায় আইন শৃংখলা বিঘœকারী অপরাধ দ্রুত বিচার আইনে মামলা নং ৫৬ তাং ১৪/০৪/১৮ইং দায়ের হয়েছে।

 

মামলায় বাদী অভিযোগ করেন রাত সাড়ে বারোটার দিকে আকুয়া ওয়ারলেস গেইট এলাকার জনৈক হীরা চায়ের দোকান থেকে তারা দুইজন চা পান খেয়ে রাস্তায় উঠামাত্রই পুলিশ সদস্য আমিরুল ইসলামের নেতৃত্বে ঐ তিনজন তাদেরকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে মাদক ব্যবসায়ী বলে হুমকি দিয়ে তাদের পকেট থেকে টাকা পয়সা কেড়ে নেয়। তাদের ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে তাদেরকে ঘেরাও করে। এ সময় সুমন সরকার দৌড়ে পালানোর চেষ্ঠা করলে জনতা আটক করে তাকে গনধোলাই দিয়েছে। মামলায় কোতোয়ালী পুলিশ তাদেরকে আদারতে প্রেরণ করেছে।

 

পুলিশের একাধিক মহলের মতে, ময়মনসিংহের বর্তমান পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম যোগদানের পর থেকে যে কোন সভা সেমিনারে বক্তব্য দিয়ে আসছেন, অপরাধ নির্মুলে তিনি বদ্ধপরিকর। অপরাধী যদি পুলিশ সদস্যও হয় তাকেও ছাড় নেই। যেই কথা সেই কাজ।

 

ডিবি পুলিশ পরিচয়ে সামান্য সাড়ে ৫শত টাকা পথচারীর কাছ থেকে হুমকি দিয়ে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় মামলা, জেলহাজতের ঘটনায় পুলিশের মাঝে একদিকে যেমন আতংক বিরাজ করছে। অপরদিকে পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলামের দায়িত্ব পালনে অন্যায়কে অন্যায় বলে তার বিচারে পিছু না হটায় শহরবাসী তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৩৬ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ১৬, ২০১৮