|

ময়মনসিংহে ৫ শতাধিক লোকের সেচ্ছাশ্রমে নদীর বেড়ীবাঁধ নির্মাণ

ধোবাউড়া প্রতিনিধি:   ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলায় গামারীতলা ইউনিয়নে দুইদিনব্যাপী সেচ্চাশ্রমে নেতাই নদীর পশ্চিম গামারীতলা নামক স্থানে বেড়ীবাঁধ নির্মাণ কাজ শুরু হয়।

 

সোমবার সকাল থেকে এলাকার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রায় ৫ শতাধিক লোকের অংশ গ্রহণে বাঁধ নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে।

 

আসন্ন বর্ষাকালে পাহাড়ী ঢলের হাত থেকে রক্ষা পেতে স্থানীয়রা এ উদ্যোগ গ্রহণ করেন।কাজের উদ্বোধন করেন গামারীতলা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খান, ধোবাউড়া সদর ইউপি চেয়ারম্যান এরশাদুল হক, সাবেক চেয়ারম্যান মজিবর রহমান সবুজ, আঃ ওয়াহেদ তালুকদার প্রমূখ।

 

উল্লেখ্য যে, বেড়ীবাঁধটি প্রথমে ৩৯ লক্ষ টাকা ব্যায়ে নির্ধারণ করে ময়মনসিংহ পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্বাবধানে ঠিকাদারের মাধ্যমে নির্মাণ কাজ শুরু করা হয়। শুরুতেই মাটির পরিবর্তে বালি দিয়ে কাজ শুরু করাসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ উঠলে কর্তৃপক্ষ ৩৯ লক্ষ টাকা বরাদ্ধ থেকে ১৪ লক্ষ টাকা কর্তন করেন।

 

বাকী ২৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে কাজটি প্রাক্কলন মোতাবেক বাস্তবায়ন না করে বিল উত্তোলন করেন। স্থাণীয়দের অভিযোগ বেড়ীবাঁদটি লোক দেখানো কাজ সমপন্ন করা হয়েছে। এতে কিছুদিন যেতে না যেতেই বাঁধটি ভেঙ্গে যাচ্ছে। তাই বাধ্য হয়ে এলাকাবাসী সেচ্ছাশ্রমে বেড়ীবাঁধ নির্মাণ করছেন.

 

এব্যাপারে গামারীতলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন খান বলেন, এই বেড়ীবাধঁ ভেঙ্গে গেলে আমার এলাকার হাজার হাজার একর ফসল পানিতে তলিয়ে যাবে, ভেসে যবে অনেক ঘরবাড়ি। তিনি অভিযোগ করেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের গাফিলতির কারনেই বেড়ীবাঁধটি আজ হুমকির মুখে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৩:৪১ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ০৯, ২০১৮