|

ছাত্রলীগ নেতা শাওন হত্যাকান্ডের বিচারের দাবিতে মানবন্ধন

স্টাফ রিপোর্টার ॥  ময়মনসিংহে জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আশফাক আল রাফি শাওন হত্যার প্রতিবাদে এবং বিচারের দাবিতে শনিবার দুপুরে তার গ্রামের বাড়ি ফুলবাড়িয়া উপজেলার লক্ষীপুরে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে।

 

ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আশফাক আল রাফি শাওন হত্যার প্রতিবাদে এবং বিচারের দাবিতে ফুলবাড়িয়া উপজেলার লক্ষীপুরসহ আশপাশের গ্রামের মানূষ ও এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ময়মনসিংহ-ফুলবাড়িয়া সড়কের লক্ষীপুর বাজারে শনিবার দুপুরে ঘন্টাব্যাপী মানবন্ধন কর্মসূচী পালন করে।

 

কর্মসূচীতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, এলাকার সর্বস্তরের মানুষজনসহ লক্ষীপুর বাজারের দোকান মালিক ও ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে বিক্ষোভ মিছিল করে মানবন্ধন কর্মসূচীতে অংশ গ্রহন করেন।

 

মানবন্ধন কর্মসূচী চলাকালে ছাত্রলীগ নেতা আশফাক আল রাফি শাওন হত্যার বিচারের দাবিতে বক্তব্য রাখেন নিহত শাওনের পিতা আওয়ামীলীগ নেতা এম এ কুদ্দুছ, জেলা পরিষদের সদস্য তাজুল ইসলাম বাবলু, রুহুল আমীন, ফুলবাড়িয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জয়নাল অবেদীন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি কামরুজ্জামান ও ইউনিয়ন পরিষদের সবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল মোতালেব সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এস এম ইব্রাহিম, দেওখোলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান সরকার, আওয়ামীলীগ নেতা হাবিবুর রহমান খান, সাংবাদিক এম এ আজিজ প্রমুখ।

বক্তারা তাদের এলাকার কৃতি সন্তান এবং এলাকার ভবিষ্যত কান্ডারী শাওন হত্যাকারীদের আইনের আওতায় এনে ফাঁসি দেয়ার জন্য সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। এক পর্যায়ে মানবন্ধন কর্মসূচী চলাকালে ময়মনসিংহ-ফুলবাড়িয়া সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় সড়কের দুই দিকে ছোট-বড় শতাধিক গাড়ি আটকা পড়ায় তীব্রযানজটের সৃষ্টি হয়েছে।
গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে শহরের হরিকিশোর রায় সড়কে দুবৃত্তদের গুলিতে ছাত্রলীগ নেতা শাওন আহত হয়। পরে রাজধানীর ইবনেসিনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৮ মার্চ দুপুরে ছাত্রলীগ নেতা আশফাক আল রাফি শাওন মারা গেলে ৯ মার্চ তাকে পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়।

 

পুলিশ ঘটনার কোতোয়ালী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের নং-৪৮(৩)১৮ দায়ের করেন। পুলিশ শাওন হত্যা মামলায় ছাত্রীলীগ নেতা সঞ্চয় দত্ত, আরিফুল হক ওরফে পিচ্চি আরিফ ও আমিনুল ইসলাম হিমেলকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে তিন দিনের পুলিশী রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে গ্রেফতারকৃত সঞ্চয় দত্ত আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্ধি দিয়েছেন বলে কোতোয়ালী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল ইসলাম জানিয়েছেন।

 

ছবিঃ লোক লোকান্তর

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:২৪ অপরাহ্ণ | মার্চ ২৪, ২০১৮