|

ময়মনসিংহে ১০টাকা কেজি মূল্যের ৯৬ বস্তা চাল উদ্ধার

আজহারুল হক, ময়মনসিংহঃ  ময়মনসিংহের নান্দাইলে ১৮ ঘন্টার ব্যবধানে পৃথক দু’টি ঘটনায় সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০টাকা কেজি মূল্যের ৯৬ বস্তা চাল কালো বাজারে বিক্রি করে পাচারের সময় জনতা চাল আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে।

 

বুধবার (২১ মার্চ) দুপুর দেড়টার দিকে নান্দাইলে ঝালুয়া হেমগঞ্জ বাজারে একটি এবং মঙ্গলবার (২০ মার্চ) সন্ধার পর সাড়ে সাতটার দিকে আচারগাঁও ইউনিয়নের আনন্দ বাজারে অপর ঘটনাটি ঘটে।

 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০টাকা কেজি মূল্যের ৩৯ বস্তা চাল অজ্ঞাত স্থান থেকে ক্রয় করে উপজেলা আ’লীগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক মেম্বার মোঃ আব্দুছ সাত্তারের ছেলে আল- আমিন (৩০)’র ঝালুয়া হেমগঞ্জ বাজারের নিজ ঘরে মজুদ করে রাখে।

 

গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বুধবার (২১ মার্চ) দুপুর দেড়টার দিকে পুলিশ ঘরের মালিক আল-আমিনের ঝালুয়া হেমগঞ্জ বাজারে ঘর থেকে ওই ৩৯ বস্তা চাল উদ্ধার করে পুলিশ। তাৎক্ষণিক নান্দাইলের ইউএনও ঘটনাস্থলে পুলিশসহ উপস্থিত হয়ে ওই ৩৯ বস্তা চাল জব্দ করে থানায় নিয়ে আসেন।

 

অপরদিকে নান্দাইল উপজেলার আচারগাঁও ইউনিয়নের আনন্দ বাজারে নিয়োগকৃত ডিলার মোঃ এনামুল হক ৫৭বস্তা (১৭১০ কেজি) চাল কালো বাজারে বিক্রি করে দেয়। গতকাল মঙ্গলবার (২০ মার্চ) সন্ধার পর সাড়ে সাতটার দিকে চাল পাচারের সময় জনতা এই চাল আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। খবর পেয়ে নান্দাইলের ইউএনও তাৎক্ষণিক পুলিশসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ওই ৫৭ বস্তা চালও জব্দ করে থানায় নিয়ে আসেন।

 

নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)সরদার মোঃ ইউনুস আলী চাল জব্দ করে থানায় নিয়ে আসার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বুধবার দুপুরে ঝালুয়া হেমগঞ্জ বাজারের ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে এবং মঙ্গলবার আচারগাঁও ইউনিয়নের আনন্দ বাজারের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেইসাথে এসব ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

 

নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ হাফিজুর রহমান পৃথক এলাকার এ দু’টি ঘটনায় ৯৬ বস্তা চাল আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিশেষ ক্ষমতা আইনে এসব ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

ছবিঃ লোক লোকান্তর

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:৫৬ অপরাহ্ণ | মার্চ ২২, ২০১৮