|

ট্রেনের চাকার রড ভাঙা, অল্পের জন্য রক্ষা পায় সহস্রাধিক যাত্রীসহ উপবন এক্সপ্রেস

লোক লোকান্তরঃ  ট্রেনের বগির চাকার রড ভাঙায় দুটি স্টেশন অতিক্রম করার পরই ঢাকাগামী যাত্রীবাহী ৭৪০নং আন্তঃনগর উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনটি থামানো হয়।

 

এতে অল্পের জন্য ট্রেনটি বড় ধরনের দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পায়। আল্লাহ রক্ষা করেছেন। নতুবা সহস্রাধিক যাত্রী নিয়ে উপবন ট্রেনটি বড় ধরনের দুর্ঘটনায় পতিত হতে পারত বলে জানান শমসেরনগর রেলওয়ে স্টেশনমাস্টার কবির আহমদ।

 

বুধবার রাত ১২টার দিকে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমসেরনগর স্টেশনে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। ট্রেনটি দুই ঘণ্টা আটকা থাকার পর ক্ষতিগ্রস্ত বগি কেটে শমসেরনগরে রেখে রাত ২টায় যাত্রা শুরু করে।

 

শমসেরনগর রেলওয়ে স্টেশনমাস্টার কবির আহমদ বলেন, রাত ১০টায় ঢাকাগামী আন্তঃনগর উপবন ট্রেন সিলেট থেকে যাত্রা শুরু করে। ট্রেনটি রাত সাড়ে ১১টার দিকে লংলা স্টেশন অতিক্রমকালে ট্রেনের বগি (গ-প্রথম শ্রেণি বার্থ) ও চাকার সংযুক্ত একটি লোহার রড ভেঙে যায়। এ অবস্থায় ভাঙা রডসহ টেনে ট্রেনটি টিলাগাঁও, মনু স্টেশন অতিক্রম করে রাত ১২টায় শমসেরনগর স্টেশনে এসে যাত্রাবিরতি করে।

 

এর মাঝে মনু রেল সেতুসহ অনেক সেতু অতিক্রমকালে বগির ঝুলে থাকা লোহার রডের কারণে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতেও পারত।

 

পরে চালক বিষয়টি বুঝতে পেরে উপবন ট্রেন থেকে ক্ষতিগ্রস্ত বগিটি কেটে শমসেরনগর স্টেশনের ২নং লাইনে রেখে বাকি যাত্রীবাহী বগি নিয়ে রাত ২টায় ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করে।

 

উল্লেখ্য, ২২ ফেব্রুয়ারি রাতে একই রেলপথের সাতগাঁও স্টেশন এলাকায় ঢাকাগামী উপবন ট্রেনের ১১টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে দুর্ঘটনায় পতিত হয়েছিল। পরে টানা ১৫ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর সিলেটের সঙ্গে রেলযোগাযোগ স্বাভাবিক হয়।

 

সুত্রঃ যুগান্তর

সর্বশেষ আপডেটঃ ২:২৩ অপরাহ্ণ | মার্চ ০৮, ২০১৮