|

নবজাতক চুরি পরিকল্পনা, দুই ভুয়া ডাক্তারের কান্ড!

লোক লোকান্তরঃ  গায়ে সাদা এপ্রোন, হাতে চিকিৎসকের ফাইল। চালচলন হুবহু ডাক্তারের মতো। রোগীরা চিনতেও পারবে না এরা কারা। কিন্তু সন্দেহ হয় ওয়ার্ডের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের। পরে খবর দিলে পুলিশ এসে ধরে নিয়ে যায় তাদের।

 

ইউনিফর্ম পরে ডাক্তার বেশে নবজাতক চুরির পরিকল্পনায় গাইনি ওয়ার্ডের ‘লেবার রুম’ এ যায় দুই ভুয়া ডাক্তার। তাদেরকে আটক করা হয়েছে।

 

রোববার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে এই ঘটনাটি ঘটে। ডাক্তার সেজে তারা নবজাতক চুরি পরিকল্পনা করেছিল বলে ধারণা করছে পুলিশ।

 

আটককৃতরা হলেন- মিরসরাইয়ের নিজামপুর কলেজ এলাকার মো. জাফরের ছেলে মো. রাজ (১৯) এবং বরিশালের বাকেরগঞ্জের শাহরিয়ার মাহমুদের স্ত্রী ফারজানা আকতার মনি (২৬)।

 

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার বলেন, ডাক্তারদের ইউনিফর্ম পরে দুইজন ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের সংবেদনশীল এলাকা হিসেবে চিহ্নিত লেবার রুমে ঢুকে পড়েন। ফারজানা আকতার নিজেকে গাইনি বিশেষজ্ঞ পরিচয় দেন। তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক হওয়ায় ওয়ার্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা চ্যালেঞ্জ করেন। পরে তাদের আটক করে চমেক পুলিশ ফাঁড়িতে নিয়ে আসা হয়। দুজনই ভুয়া ডাক্তার। তাদের পাঁচলাইশ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

চমেক হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ জহিরুল হক ভূঁইয়া বলেন, দুজনেই স্বীকার করেছে, তারা চুরি করতে এখানে এসেছে।

 

‘২০ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার হাসপাতালের ২৯ নম্বর কেবিন ওয়ার্ড থেকে চুরির ঘটনা ঘটে। এরপর আমরা নিরাপত্তা বাড়িয়ে দিই। আটক দুজন ওইদিনের চুরির ঘটনার সঙ্গে জড়িতের কথাও স্বীকার করে।’

 

জহিরুল হক বলেন, ‘দুজনকে পাঁচলাইশ থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে। এছাড়াও হাসপাতালে অতিরিক্ত নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।’

 

চমেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার মো. জালাল উদ্দিন বলেন, ‘দুজনকে আটক খবর জেনেছি। তাদেরকে পুলিশ দিয়ে দেয়া হয়েছে।’

সর্বশেষ আপডেটঃ ১০:২৬ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৮