|

বেসরকারি পাঁচ ব্যাংকে নিয়োগ,পরীক্ষা প্রস্তুতি ও সহায়িকা

লোক লোকান্তরঃ  তরুণদের পছন্দের চাকরিগুলোর মধ্যে ব্যাংকিং সেক্টর শীর্ষে অবস্থান করছে। এর প্রধান কারণগুলো হল- ব্যাংকিং সেক্টরে কাজের ভালো পরিবেশ রয়েছে। বেতন কাঠামো ইর্ষণীয়। বছরে বেশ কয়েকটি ইনসেনটিভ পাওয়া যায়, যা অন্য বহু প্রতিষ্ঠানে নেই।

 

এবার নতুনদের স্বপ্নের-আকর্ষণীয় ব্যাংকিং ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ করে দিচ্ছে ৫টি বেসরকারি ব্যাংক। এ লক্ষ্যে সম্প্রতি পৃথক পৃথক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করা হয়েছে। আগ্রহীরা যোগ্যতা থাকা সাপেক্ষে আবেদন করতে পারেন এসব প্রতিষ্ঠানে।

 

মধুমতি ব্যাংক

তিনটি পদে নিয়োগ দেবে বেসরকারি মধুমতি ব্যাংক। এর মধ্যে চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার (সিএফও) পদে আবেদনের যোগ্যতা ফিন্যান্স অথবা অ্যাকাউন্টিংয়ে মাস্টার্স বা এমবিএ ডিগ্রিধারী হওয়া। ১৮ বছরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।

 

একই ব্যাংকে নিয়োগ দেয়া হবে হেড অব আইসিসিডি পদেও। এক্ষেত্রে চাওয়া হয়েছে ১৮ বছরের অভিজ্ঞতা। তবে শিক্ষাগত যোগ্যতা মাস্টার্স বা এমবিএ হলেই চলবে- তা সেটি যে বিষয়েই হোক না কেন।

 

প্রবেশনারি অফিসার পদেও এই ব্যাংকে দেয়া হবে। আবেদনের যোগ্যতা এমবিএম, এমবিএ অথবা স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী হওয়া। আবেদনকারীদের শিক্ষাজীবনে ন্যূনতম তিনটি প্রথম শ্রেণী থাকতে হবে। অনূর্ধ্ব-৩০ বছর এবং মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে বয়স ৩২ বছর পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। বাংলাদেশের যেকোনো স্থানে নিয়োগ দেয়া হবে।

আবেদনের শেষ তারিখ ২৮ ফেব্রুয়ারি। প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে ঢুকে আবেদন করা যাবে।

 

 

যমুনা ব্যাংক

যমুনা ব্যাংক লিমিটেড নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। ম্যানেজার/সাব-ম্যানেজার, ক্রেডিট ও ফরেন ট্রেড অফিসার, এসএমই সেলস এক্সিকিউটিভ, রিটেইল সেলস এক্সিকিউটিভ (চুক্তিভিত্তিক) পদে নিয়োগ দেয়া হবে।

 

ম্যানেজার/সাব-ম্যানেজার পদে আবেদনের যোগ্যতা যেকোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাস। তবে বাণিজ্যে স্নাতকোত্তর পাস করা প্রার্থীরা বেশি অগ্রাধিকার পাবেন।

 

সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে ন্যূনতম দুই থেকে তিন বছরের অভিজ্ঞতা ও ক্রেডিট ও ফরেন শাখায় ছয় থেকে আট বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। তৃতীয় বিভাগ গ্রহণযোগ্য হবে না। ক্রেডিট ও ফরেন ট্রেড অফিসার/স্পেশিয়ালিস্ট পদে আবেদনের যোগ্যতা যেকোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাস থাকতে হবে।

 

তবে বাণিজ্যে স্নাতকোত্তর পাস করা প্রার্থীরা বেশি অগ্রাধিকার পাবেন। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে ন্যূনতম দুই থেকে তিন বছরের অভিজ্ঞতা ও ক্রেডিট ও ফরেন শাখায় ছয় থেকে আট বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। তৃতীয় বিভাগ গ্রহণযোগ্য হবে না। আর এসএমই সেলস এক্সিকিউটিভ পদে আবেদনের যোগ্যতা স্নাতক পাস।

 

তবে বাণিজ্যে স্নাতকোত্তর পাস করা প্রার্থীরা বেশি অগ্রাধিকার পাবেন। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে ন্যূনতম এক থেকে চার বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। রিটেইল সেলস এক্সিকিউটিভ পদে আবেদনের যোগ্যতা স্নাতক। তবে বাণিজ্যে স্নাতকোত্তর পাস করা প্রার্থীরা বেশি অগ্রাধিকার পাবেন। সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে ন্যূনতম এক থেকে চার বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। নতুনরাও এই পদে আবেদন করতে পারবেন। আগ্রহী প্রার্থীরা যমুনা ব্যাংকের ওয়েবসাইট (http://jamunabankbd.com/career) গিয়ে আবেদন করতে পারবেন। আবেদন করা যাবে ২৭ ফেব্রুয়ারি-২০১৮ পর্যন্ত।

 

আইসিবি ইসলামিক ব্যাংক

বেসরকারি এ ব্যাংকটি দুটি নিয়োগ দেবে ‘অফিসার-ট্রেড সার্ভিসেস’ পদে। বিশ্ববিদ্যালয় স্নাতক ডিগ্রিধারীরা আবেদন করতে পারবেন, তবে এমবিএ/মাস্টার্স ডিগ্রিধারীরা পাবেন অগ্রাধিকার। ঢাকা ও যশোরে এ দুটি পোস্টিংয়ের বিপরীতে প্রার্থীর বয়স হওয়া চাই ২৫ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে এবং থাকা চাই ২ থেকে ৪ বছরের অভিজ্ঞতা।

 

এছাড়াও ব্রাঞ্চ ম্যানেজার পদে ঢাকা, ফেনী, যশোর, নওগাঁ, নারায়ণগঞ্জ ও সিলেটে পাঁচ পদে নিয়োগ দেবে এ ব্যাংকটি। ব্র্যাঞ্চ ব্যাংকিংয়ে দুই থেকে তিন বছরসহ ব্যাংকিং সেক্টরে ৬-৭ বছরের অভিজ্ঞতাসম্পন্ন এবং অনূর্ধ্ব ৪০ বছর বয়সী প্রার্থীরা করতে পারবেন আবেদন। শিক্ষাগত যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে স্নাতক; তবে এমবিএ ডিগ্রিধারীরা পাবেন অগ্রাধিকার।

 

প্রথম পদের জন্য ২৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে অনলাইনে আবেদন করা যাবে। আর শেষ পদেও জন্য ৩ মার্চেও মধ্যে আবেদন করা যাবে। ওয়েব-লিঙ্ক- http://jobs.bdjobs.com/job details.asp?id=751783&fcatId=2&ln=1 থেকে আবেদন করা যাবে।

 

ব্যাংক এশিয়া

ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। ব্যাংকটি অ্যাসিস্ট্যান্ট রিলেশনশিপ অফিসার পদে নিয়োগ দেবে। তবে চুক্তিভিত্তিক এই নিয়োগ দেয়া হবে। যেকোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দ্বিতীয় শ্রেণীর স্নাতক পাস করা প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। সিজিপিএ ২.৫০ থাকতে হবে। তবে যাদের নিজস্ব মোটরসাইকেল ও ল্যাপটপ আছে, তারা বেশি অগ্রাধিকার পাবেন। আগ্রহী প্রার্থীরা ব্যাংক এশিয়ার ওয়েবসাইট (http://www.bankasia-bd.com/career/available jobs) থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। আগামী ১ মার্চ-২০১৮ পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

 

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকে চাকরি

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক জনবল নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। ম্যানেজমেন্ট ট্রেইনি পদে এই নিয়োগ দেয়া হবে। কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যেকোনো বিষয়ে স্নাতক অথবা স্নাতকোত্তর পাস করা প্রার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। সিজিপিএ ৪-এর মধ্যে ৩ এবং জিপিএ ৫-এর মধ্যে ৪ থাকতে হবে।

প্রবেশনারি পিরিয়ডে নিয়োগপ্রাপ্তরা প্রতি মাসে বেতন পাবেন ৬০ হাজার টাকা এবং সাফল্যের সঙ্গে প্রবেশনারি পিরিয়ড শেষ হওয়ার পর জুনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে নিয়োগ দেয়া হবে। এই পদে বেতন দেয়া হবে ৮৫ হাজার টাকা প্রতি মাসে। আগ্রহী প্রার্থীরা মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংকের ওয়েবসাইটে (http://www.mutualtrustbank.com/career/) গিয়ে আবেদন করতে পারবেন। আগামী ২৯ মার্চ, ২০১৮ পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

 

নিয়োগ পরীক্ষা

ব্যাংকে নিয়োগের ক্ষেত্রে সাধারণত প্রার্থীদের এমসিকিউ, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হয়। পরীক্ষার তারিখ ও সময় পরে ব্যাংকের ওয়েবসাইটে কিংবা বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হবে।

 

প্রস্তুতি

এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষা সাধারণত বাংলা, ইংরেজি, সাধারণ গণিত ও সাধারণ জ্ঞান (বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলি), তথ্য-প্রযুক্তি, অ্যানালিটিক্যাল অ্যাবিলিটি বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। বিগত বছরগুলোর বাংলাদেশ ব্যাংকের বিভিন্ন নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন অনুসরণ করলে এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষায় ভালো করা যাবে।

বিভিন্ন ব্যাংকে অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতি কীভাবে ভালো করে নেয়া যেতে পারে এ বিষয়ে এ প্রতিবেদকের কথা হয় সম্প্রতি বেসরকারি ব্যাংকে নিয়োগ পাওয়া তিনজন অফিসারের সঙ্গে। তারা জানান, বেসরকারি ব্যাংকগুলোতে নিয়োগের ক্ষেত্রে ভিন্ন ভিন্ন পদ্ধতি অনুস্মরণ করা হয়। এগুলোর জন্য পদভেদে আলাদা প্রস্তুতির দরকার হয়। তবে কিছু কমন বিষয়ে মিল থাকে।

 

বহু নির্বাচনী পরীক্ষার বাংলা অংশে ব্যাকরণ এবং সাহিত্য থেকে প্রশ্ন করা হয়। সাহিত্যে কবি-সাহিত্যিকদের জীবনী, সাহিত্যকর্ম, বিভিন্ন কবিতার চরণ, উপন্যাস বা গল্পের চরিত্র থেকে প্রশ্ন আসতে পারে। ব্যাকরণ অংশে আসে বাগধারা, এককথায় প্রকাশ, সন্ধিবিচ্ছেদ, সমাস, শব্দ, শুদ্ধ-অশুদ্ধ, সমার্থক, বিপরীতার্থক ও পারিভাষিক শব্দ।

 

ইংরেজি বিষয়ে Fill in the blanks, Snoûm, antoûm, phrases and idioms, Tense, Correct Spelling, Sentence Correction, Analogy থেকে প্রশ্ন আসে এমসিকিউ অংশে। একটি বিভাগ থেকে কয়েকটি করে প্রশ্ন থাকতে পারে। সমসাময়িক ইস্যুতে যাদের জানাশোনা ভালো তারা লিখিত পরীক্ষায় রচনায় ভালো করেন। তারা আরও জানান, যে অংক ভালো পারে, ব্যাংক চাকরি তার জন্য। নিয়োগ পরীক্ষায় সে অন্যের চেয়ে এগিয়ে থাকে।

 

যেকোনো ব্যাংকের পরীক্ষায় ভালো করতে হলে মাধ্যমিক পর্যায়ের বই আয়ত্তে থাকতে হবে। বিশেষ করে ঐকিক নিয়ম, শতকরা, পরিমাপ ও একক, সুদকষা, লাভ-ক্ষতি ও পরিমিতি বিষয়ে। এ ছাড়া লসাগু-গসাগু, বর্গ, সরল, মাননির্ণয় ও জ্যামিতিক সূত্র ও সংজ্ঞা তো আছেই। আর সাধারণ জ্ঞানে ভালো করার জন্য দৈনিক পত্রিকা ও সমসাময়িক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয়গুলোতে খেয়াল রাখতে হবে।

 

মৌখিক পরীক্ষা

প্রার্থী স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে যে বিষয়ে পড়াশোনা করেছে, ভাইভায় সে বিষয় সম্পর্কেই বেশি প্রশ্ন করা হয়। প্রশ্ন করা হতে পারে নিজ জেলা সম্পর্কেও। পাশাপাশি ব্যাংকিং, অর্থনীতি ও সাম্প্রতিক সময়ের বিষয়ে প্রশ্ন করা হতে পারে। জানতে হবে সাধারণ জ্ঞান ও সাম্প্রতিক বিষয়ের খুঁটিনাটি। মৌখিক পরীক্ষায় আত্মবিশ্বাসের উত্তর দিতে হবে।

 

প্রস্তুতি সহায়িকা

বিসিএসের প্রস্তুতি সহায়ক বই ব্যাংকের পরীক্ষায় অনেক কাজে আসে। মাধ্যমিক পর্যায়ের বইয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রকাশনীর ব্যাংক রিক্রুটমেন্ট গাইড দেখতে পারেন। আইবিএ-এমবিএ ভর্তি গাইড, জিম্যাট অফিশিয়াল গণিত ও ইংরেজি উভয় বিষয়ের প্রস্তুতির জন্য দেখতে পারেন।

 

সাধারণ জ্ঞানের জন্য মাসিক তথ্যভিত্তিক পত্রিকা, তথ্যপ্রযুক্তির জন্য এইচএসসি পর্যায়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বই বেশ সহায়ক হতে পারে। সাধারণ জ্ঞানের জন্য বিসিএস প্রস্তুতি সহায়ক বাজারে প্রচলিক যেকোনো একটি কোম্পানির সাধারণ জ্ঞানের বই পড়লেই যথেষ্ট।

 

বাড়তি যোগ্যতা

ব্যাংকারদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ব্যাংকের চাকরি মর্যাদাসম্পন্ন ও সুযোগ-সুবিধা বাড়ায় প্রার্থীদের বাড়তি যোগ্যতাগুলোও পরখ করে দেখা হয়। তাই ব্যাংকার হওয়ার জন্য একাডেমিক পড়ালেখার পাশাপাশি বাড়তি যোগ্যতাও থাকা চাই। ব্যাংকে নিয়োগের ক্ষেত্রে মোটাদাগে আবেদনকারীর বিষয়গত জ্ঞান কতটা গভীর তা যাচাই করা হয়ে থাকে।

 

তার ফাংশনাল নলেজ খতিয়ে দেয়া হয়। ভাইভাতে প্রার্থীর জড়তা ও প্রশ্নের উত্তর নিয়ে দ্বিধাদ্বন্দ্ব নেগেটিভ মার্কিং করা হয়। এজন্য তার বাচনভঙ্গিও স্মার্ট হওয়া জরুরি। আত্মবিশ্বাস থাকা চাই অটুট। এছাড়া প্রার্থীর কমিউনিকেশন স্কিল, ইংরেজি দক্ষতা, কম্পিউটারে পারদর্শিতা, সৃজনশীলতা, নেতৃত্ব গুণাগুণ, দায়িত্ববোধ, সততা, ন্যায়নিষ্ঠা সর্বোপরি সত্যিই তিনি কাজটির জন্য উপযুক্ত কিনা সে বিষয়গুলো যাচাই শেষেই চূড়ান্ত নিয়োগ দেয়া হয়।

 

 

সুত্রঃ যুগান্তর

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:৩১ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০১৮