|

পথচলার দুই বছর

আবুল বাশার মিরাজ, বাকৃবি:   ২০১৬ সাল। সালটি ওদের জীবনের সাথে খুব করে লিখা থাকবে। শুধু একজনের নয়। প্রায় শ খানেকের। কারণ কলেজ জীবনের শেষে, মা বাবাকে ছেড়েই চলে অাসা। তবে উদ্দেশ্য মহৎ। দেশের কৃষির কল্যাণে কাজ করা।

 

বর্তমান দেশের সাড়ে ১৬ কোটি মানুষের তিন বেলা খাদ্যের ভাড় নেওয়া। টেকসই কৃষি উন্নয়ন তথা খাদ্য শস্যের উৎপাদন বৃদ্ধিতে কৃষি যান্ত্রিকীকরণে ভূমিকা রাখা।

 

আর যান্ত্রিকীকরণ ছাড়া কৃষি উন্নয়ন একেবারেই কল্পনা করা যায়না। এজন্য দেশের জলবায়ু পরিবর্তন, অর্থনৈতিক অবস্থা, জলোচ্ছাস, বন্যা, খড়া, লবনাক্ততা মাথায় রেখে গবেষণার মাধ্যমে নতুন নতুন কৃষি যন্ত্রপাতি ও কৃষি প্রযুক্তির উদ্ভাবন ঘটিয়ে তারা দেশকে ও দেশের কৃষিকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য তারা পড়াশোনা করে যাচ্ছে।

 

বলছি বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়া ২০১৫- ১৬ শিক্ষাবর্ষের কৃষি প্রকৌশল ও কারিগরি অনুষদীয় শিক্ষার্থীদের। প্রকৃতিকন্যাখ্যত চিরসবুজের ক্যাম্পাসে দেখতে দেখতে তারা পার করেছে দু বছর। তারা এখন তৃতীয় বর্ষে। তারা পালন করছে একসাথে দুই বছর । পাশ্চত্য অাবহে এটি এখন ক্লাস পার্টি নামেই বেশি পরিচিত পেয়েছে। তবে নামের সাথে সেটি থাকলেও দেশীয় আবহেই তারা পালন করেছে দিনটি।

 

ওদের অানন্দ মাতোয়ারার প্রথমদিনে শুরু হয় পুরো নিজেদের ক্লাসকে বেলুন আর পোস্টার ব্যানারে সাজানোর মাধ্যমে। বিকেলে ব্রহ্মপুত্র নদে নৌকা ভ্রমণ। একসাথে ক্যাম্পাসে ঘোরাফেরা করা। সন্ধ্যায় ফানুস উড়ানো। আর সাথে আছে চিরচেনা বন্ধুদের সাথে বিভিন্ন রকমের খুঁনসুটি আর ক্যামেরার ফ্রেমে নিজেদের স্মৃতিতে বন্দী রাখা। পরের দিন নাচ,গান আর অভিনয়ে মাতিয়ে রাখে মাশহুর, কৌশিক, প্রান্ত, শাকিল, মুবিন সফিক, চিত্রা, রিতা, জ্যোতি প্রমুখ।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৫১ পূর্বাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮