|

শাহজালাল (রহ.) এর কবর জিয়ারত করেই নির্বাচনী প্রচারণায় নামছেন শেখ হাসিনা

লোক লোকান্তরঃ   আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রাধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ মঙ্গলবার সিলেট সফরের মধ্য দিয়ে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও পাঁচ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচার শুরু করবেন। হজরত শাহজালালের (রহ.) কবর জিয়ারতের মাধ্যমে তিনি শুরু করবেন নির্বাচনী সফর। সিলেটে একটি নির্বাচনী সমাবেশও করবেন তিনি।

 

প্রধানমন্ত্রী বেলা ১১টার দিকে হযরত শাহজালাল (র.) ও হযরত শাহপরান (র.) এর মাজার জিয়ারত করবেন। এরপর দুপুর ২টা ৪০ মিনিটের দিকে তিনি ৩৮টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। এর মধ্যে সিলেট সিটি করপোরেশনের পাঁচটি প্রকল্পও অন্তর্ভুক্ত আছে।

 

সিলেটের উপ-কমিশনার রাহাত আনোয়ার বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পগুলোর মধ্যে ২০টি প্রকল্প উন্মুক্ত ও ১৮টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

 

এ ছাড়া বিকেল ৩টার দিকে সিলেট আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথি হিসেবে ভাষণ দিবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সন্ধ্যায় তিনি সিলেট শহর ত্যাগ করবেন।

 

এদিকে আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণের জনসভায় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ও শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদও উপস্থিত থাকবেন।

 

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইং থেকে জানানো হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২টা ৪০ মিনিট থেকে ২টা ৫৫ মিনিটের মধ্যে হযরত গাজী বোরহান উদ্দিন (রহ.) মাজার উন্নয়ন, মহিলা এবাদতখানা নির্মাণ, মাজারের সৌন্দর্যবর্ধন এবং মাজারের যাতায়াতের প্রধান রাস্তা (২ কিমি.) প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন, সিলেট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৬ তলা ভিতবিশিষ্ট ও ৪ তলা নতুন একাডেমিক-কাম-প্রশাসনিক ভবন, সিলেট জেলার পিরিজপুরে ১টি সার পরীক্ষাগার ও গবেষণাগার ভবন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিভাগীয় জেলা অফিস, সিলেট বিভাগীয় ও জেলা এনএসআই কার্যালয় ভবন, সিলেট মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, জাকিগঞ্জ উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নগর ভবন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ১২ তলা ভিতবিশিষ্ট নগর ভবনের বেইজমেন্ট ফ্লোরসহ ৫ম তলা পর্যন্ত ভবন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মধ্য দিয়ে প্রবাহিত বাবুছড়ায় আরসিসি ইউ টাইপ ড্রেন নির্মাণকাজ, জালালাবাদ রাস্তা সম্প্রসারণ ও এসফল্ট দ্বারা উন্নয়নকাজ, সিলেট-সুনামগঞ্জ বাইপাস সড়ক উন্নয়ন, মৌলভীবাজার-রাজনগর-ফেঞ্চুগঞ্জ-সিলেট সড়ক এবং রশিদপুর-বিশ্বনাথ-লামাকাজী সড়কে ওভারলে কাজ, সিলেট-গোপালগঞ্জ-চারখাই-জকিগঞ্জ সড়কে এবং দরবস্ত-কানাইঘাট-শাহাবাগ সড়কে মজবুতীকরণসহ ওভারলে কাজ, ঢাকা (কাঁচপুর)-ভৈরব-জগদীশপুর-শায়েস্তাগঞ্জ-সিলেট-তামাবিল-জাফলং সড়কের (সিলেট-শেরপুর অংশ) মজবুতীকরণসহ ওভারলে কাজ এবং সড়কের শেরপুর টোল প্লাজা অংশে রিজিড পেভমেন্ট নির্মাণকাজ, জকিগঞ্জ উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন, দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কামালবাজার ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের অন্তর্গত কানাইঘাট সড়ক, কুইটুকে তিন তলাবিশিষ্ট প্রাইমারি হেলথ কেয়ার সেন্টার ভবনের উদ্বোধন করবেন।

 

এছাড়াও তিনি হযরত শাহজালার (রহ.) মাজারের মহিলা এবাদতখানা ও অন্যান্য উন্নয়ন কার্যক্রম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম ফজিলাতুননেছা মুজিব হল নির্মাণ, গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদ ভবন ও হলরুম নির্মাণ, সিলেট এম.এ.জি. ওসমানী মেডিকেল কলেজের ছাত্র হোস্টেল ভবন নির্মাণ, সিলেট এম.এ.জি. মেডিকেল কলেজের ছাত্রী হোস্টেল ভবন নির্মাণ, সিলেটে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেলা হাসপাতাল নির্মাণ, সিলেট এম.এ.জি. ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালের অভ্যন্তরে ১টি নার্সিং হোস্টেল নির্মাণ, সিলেট পুলিশ লাইনে ১টি এসএমপি ব্যারাক ভবন নির্মাণ, সিলেট পুলিশ লাইনে ১টি অস্ত্রাগার নির্মাণ, এসএমপি’র কোতোয়ালি মডেল থানার কম্পাউন্ডে ডরমেটরি ভবন নির্মাণ, সিলেট জেলাধীন তামাবিল ইমিগ্রেশন চেক পোস্ট ( টাইপ-২ অনুযায়ী) ভবন নির্মাণ, সিলেটস্থ লালবাজারে রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্স (আরআরএফ) পুলিশ লাইন নির্মাণ, ‘দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য হোস্টেল নির্মাণ এবং সম্প্রসারণ (বালিকা-০৬ ইউনিট, বালক ০৫ ইউনিট এবং সম্প্রসারণ-২০ ইউনিট)’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় সিলেটে হোস্টেল ভবন নির্মাণ, বিশ্বনাথ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সকে ৩১ শয্যা থেকে ৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ, বিভাগীয় পরিচালক (পরিবার পরিকল্পনা) ও জেলা পরিবার পরিকল্পনা, সিলেটের অফিস ভবন নির্মাণ, সিলেট-গোপালগঞ্জ-চারখাই-জকিগঞ্জ মহাসড়কের ৬৫ কিলোমিটার উন্নয়ন, গোলাপগঞ্জ-ঢাকা দক্ষিণ-ভাদেশ্বর মহাসড়ক ও চারখাই-শেওলা-বিয়ানীবাজার-বারইগ্রাম মহাসড়কের ৯.৬০ কিমি. উন্নয়ন, সিলেট এম.এ.জি. মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভবনের ৪ তলা থেকে ১০ তলা ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন বলে জানানো হয়।

 

প্রেস উইংয়ের তথ্য মতে, প্রধানমন্ত্রী ৩টায় সিলেট সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে জনসভায় যোগদানশেষে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে যোগ দিবেন।

 

পুলিশ জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ইতোমধ্যে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। জনসভার স্থানটিতে দুইটি ওয়াচ টাওয়ার ও শহরের বিভিন্ন স্থানে ১০০টি চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। ওয়াচ টাওয়ার থেকে জনসভা স্থলের নিরাপত্তা মনিটরিং করা হবে।

 

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মো. আবদুল ওয়াহাব বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:৩৮ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ৩০, ২০১৮