|

ফুলবাড়ীয়ায় ফার্মেসি মালিকরা ৪মাস সময় পেল : ধর্মঘট প্রত্যাহার

ফুলবাড়ীয়া ব্যুরো : মেয়াদত্তীর্ণ ঔষধ এবং ইনজেকশন রাখার দায়ে ১৩নভেম্বর বিকাল ৫টার দিকে ফুলবাড়িয়া পৌর সদরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও লীরা তরফদার মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করেন ঐসময় ৫ব্যবসায়ীকে ১লাখ ৩০হাজার টাকা জরিমানাও করা হয়।

 

জব্দকৃত ঔষধ পুড়িয়ে ধ্বংস করে দেন আদালত। এরপর থেকে ব্যবসায়ীরা তাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেন। জরুরি বৈঠকে বসেন ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ। সিদ্ধান্ত হয় রাত থেকেই অনির্দিষ্টকালের জন্যে ফার্মেসি বন্ধ রেখে ধর্মঘট চলবে।

 

ভোগান্তিতে পড়েন রোগি ও স্বজনরা। উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ এর সমন্বয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে ইউএনও লীরা তরফদার ও ঔষধ ব্যবসায়ী নেতাদের মধ্যে বৈঠক হয়।

 

মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ব্যবসায়ী ও ইউএনও’র মধ্যকার বৈঠকে ৪মাসের সময় দেয়া হয়। এ সময়ে চিহ্নিত সমস্যাগুলো সমাধান করবেন ব্যবসায়ী মালিকরা। এ ৪মাস আপাতত ঔষধের দোকানে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হবে না।

 

ইউএনও লীরা তরফদার বলেন, মানুষের জন্য ক্ষতিকর এমন কোন ঔষধ বিক্রি করা যাবে না এমনকি রাখাও যাবে না, সে বিষয় খেয়াল রেখেই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করতে হবে। তিনি বলেন, একজন অসুস্থ মানুষ বা রোগি আপনার উপর বিশ্বাস করেই ডাক্তারদের প্রেসক্রিপসন অথবা আপনার পরামর্শে ঔষধ কিনে নিয়ে যাচ্ছে আর সেটা যদি হয় মরণঘাতিক, সে বিষয়ে আরও বেশি সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ১২:০৯ পূর্বাহ্ণ | নভেম্বর ১৫, ২০১৭