|

ভালুকায় আওয়ামী লীগ নেতার পক্ষে কাজ করতেই বিএনপি নেতার পদত্যাগ!

মোঃ ফিরোজ খান, ভালুকা থেকে:  একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিনক্ষণ এখনও ঠিক না হলেও ময়মনসিংহ-১১, ভালুকা আসনে ভোটার ভাগাভাগির আঞ্চলিক মেরু করন শুরু হয়ে গেছে। ভালুকার পশ্চিমাঞ্চলের প্রবাসী আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদ যিনি আওয়ামীলীগের কোন পদে না থেকেও দীর্ঘদিন ধর্মীয় ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং ব্যক্তিপর্যায়ে অনুদান ও দানের টাকা বিলি করে এলাকায় দানবীর খেতাব লাভ করেন। বর্তমানে তিনি এলাকায় বসবাস করছেন এবং ইতোমধ্যেই নিজেকে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ঘোষনা করে এলাকায় কাজ শুরু করেছেন।

 

এরই ধারবাহিকতায় এলাকার প্রার্থীর পক্ষে কাজ করতেই সম্প্রতি পদত্যাগ করেছেন ভালুকা উপজেলা বিএনপির যগ্ম সাধারন সাধারন সম্পাদক, স্থানীয় ৮নং ডাকাতিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি ও দু’বারের সফল ইউপি চেয়ারম্যান আতিকউজ্জামান বিএসসি। পদত্যাগ করেই তিনি ওয়াহেদের পক্ষে নির্বাচনী মাঠ গোছাতে আধাজল খেয়ে নেমে পড়েছেন।

 

অনুসন্ধানে ও দলীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, এবার আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ময়মনসিংহ-১১, ভালুকা আসনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে প্রায় একডজন প্রার্থী মনোনয়ন চাইবেন। বর্তমান এমপি অধ্যাপক ডা.এম আমানউল্যাহ, উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব গোলাম মোস্তফা, সাবেক চেয়ারম্যান কাজিম উদ্দিন আহমেদ ধনু, জেলা আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদ, শহীদ পরিবারের সন্তান আন্তর্জাতিক উদ্ভিদ বিজ্ঞানী শফিউল আজম খোকা, প্রকৌশলী মহিউদ্দিন আহমদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম পিন্টু, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক ডা. কেবিএম হাদিউজ্জামান সেলিম, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেতা এড.আশরাফুল হক জর্জ ও আসাদুজ্জামান বিপ্লব তাদের মধ্যে অন্যতম।

 

বিএনপি থেকে পদত্যাগ প্রসঙ্গে আতিকউজ্জামান বিএসসি বলেন পদত্যাগ পত্রে শারিবিক অসুস্থতার কথা বলা হলেও প্রকৃত ঘটনা হচ্ছে আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদ প্রায় দু’যুগ ধরে তার ব্যক্তিগত অনুদান, দান ও যাকাতের টাকা দিয়ে পরিকল্পিত আদর্শ সমাজ গঠনের জন্য এলাকায় লক্ষ্যে কাজ করে আসছেন।  ভালুকার পশ্চিমাঞ্চলে এমন কোন উন্নয়ন নেই যেখানে এম এ ওয়াহেদের হাতের ছোয়া নেই। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আলহাজ্ব এ ওয়াহেদ আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী।

 

আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদের উন্নয়ন কর্মকান্ডে শরীক থাকা এবং তাঁর পক্ষে নির্বাচনী কর্মকান্ড পরিচালনার জন্য বিএনপি থেকে পদত্যাগ এমনটাই দাবী করলেন বিএনপি নেতা আলহাজ্ব আতিকউজ্জামান।

 

তিনি আরও বলেন, পদত্যাগের পর আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী আলহাজ্ব এম এ ওয়াহেদের সফর সঙ্গী হয়ে গোপালগঞ্জে জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুুজিবর রহমানের মাজার জিয়ারত করেছি এবং বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযদ্ধের চেতনা কে হৃদয়ে  লালন, পালন ও শানিত করার জন্য এলাকায় নৌকার পক্ষে কাজ করে চলছি।

 

ভালুকা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম জানান, আমি তাহার পদত্যাগ পত্রটি গ্রহণ করেছি পরবর্তী সময়ে দলীয় ফোরামে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৩:১৭ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৫, ২০১৭