|

অর্থ ‘পাচারের’ শঙ্কায় এফবিসিসিআই

নিজস্ব প্রতিবেদক :ব্যাংক লেনদেনে আবগারি শুল্ক বাড়ানোয় অর্থ ‘পাচার’ হয়ে যাওয়ার শঙ্কা দেখছে ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই।

 

আগামী অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে নিজেদের মতামত জানাতে গতকাল শনিবার সংবাদ সম্মেলন করে সংগঠনটি।সংবাদ সম্মেলনে এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, “ব্যাংক খাত থেকে আবগারি শুল্ক সম্পূর্ণ প্রত্যাহারের প্রস্তাব করছি।

 

মূলধন গঠন, বিনিয়োগ ও কর্মসংস্থান তথা সামগ্রিক ব্যবসায়িক কার্যক্রমের জন্য গ্রাহকরা ব্যাংক লেনদেন করে থাকেন। বাজেটে ব্যাংকে অর্থ জমা রাখার ক্ষেত্রে আবগারি শুল্ক বিভিন্ন হারে বৃদ্ধি করা হয়েছে। এতে আমানতকারী আমানত রাখতে নিরুৎসাহিত হবে।

 

এছাড়া অর্থ ব্যাংক চ্যানেলে না গিয়ে ইনফরমাল চ্যানেলে চলে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাছাড়া স্বাস্থহানিকর পণ্য ছাড়া অন্য কোনো খাতে আবগারি শুল্ক আরোপ করা সমীচীন নয়।” বৃহস্পতিবার ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বছরের যে কোনো সময় ব্যাংক হিসাবে এক লাখ টাকার বেশি লেনদেনে আবগারি শুল্ক বিদ্যমান ৫০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮০০ টাকা করা হয়েছে।

 

তবে শুল্কমুক্তসীমা ২০ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ লাখ টাকা করা হয়েছে। অর্থাৎ আগে বছরের যে কোনো সময় ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত লেনদেনে শুল্ক দিতে হতো না, এখন ১ লাখ টাকা পর্যন্ত দিতে হবে না।
রাজধানীর মতিঝিলে সংগঠনটির কার্যালয়ে ওই সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিকেএমইএ’র সভাপতি সেলিম ওসমান, বিজিএমইএ’র সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আবুল কাশেম খান, চট্টগ্রাম চেম্বারের সভাপতি মাহবুবুল আলম প্রমুখ।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৩:৩১ পূর্বাহ্ণ | জুন ০৪, ২০১৭