|

ময়মনসিংহে গার্মেন্টস কর্মীকে ধর্ষণের দায়ে সিএনজির চালক ও যাত্রীর যাবজ্জীবন(ভিডিও)

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ   ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় গার্মেন্টস কর্মী মাকসুদাকে উপর্যপুরী ধর্ষণের দায়ে সিএনজির চালক আবুল কালাম ও যাত্রী সুমন ওরফে সুমার আলীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডে আদেশ দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন চ্রাইব্যুনালের বিচারক।

 

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ময়মনসিংহের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক মোঃ হেলাল উদ্দিন জনার্কীন আদালতে এই রায় ঘোষণা করেন।

 

রায়ে মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায় ২০১৪ সালে ১৩ এপ্রিলে গার্মেন্টস কর্মী মাকসুদা ছুটিতে ঢাকা থেকে জামালপুরে নিজ বাড়ীর উদ্দেশ্যে সিএনজিযোগে যাওয়ার পথে রাতে ১১ টার দিকে ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার সৈয়দ পাড়া নামকস্থানে পৌছলে সিএনজিতে থাকা যাত্রী সুমন মাকসুদার মুখ উড়না দিয়ে বেঁধে ড্রাইভার আবুল কালামসহ পার্শ্ববর্তী একটি ফিসারিতে নিয়ে ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পুর্বক উপর্যপুরী ধর্ষনের পর ময়মনসিংহ-জামালপুর সড়কের মুক্তাগাছার চেচুয়া বাজারে ফেলে রেখে চলে যায়।

 

এরপর গার্মেন্টস কর্মী মাকসুদা নিজেই মুক্তাগাছা থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ তার ডাক্তারি পরীক্ষা করে ধর্ষণের আলামত পায় এবং পুলিশ সিএনজির মালিকের সন্ধান করে সিএনজির চালক আবুল কালাম ও যাত্রী সুমন ওরফে সুমার আলীকে গ্রেফতার করে।

 

মামলায় ১০জনের সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিজ্ঞ বিচারক মোঃ হেলাল উদ্দিন আজ  আসামী আবুল কালাম ও সুমন ওরফে সুমার আলীকে দোষী সাব্যস্থ করে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করে এবং প্রত্যেককে একলক্ষ টাকা করে জরিমানা করে অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদন্ডের আদেশ প্রদান করেছেন।

 

ভিডিওঃ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:৩২ অপরাহ্ণ | মে ১১, ২০১৭