|

ময়মনসিংহে গৃহবধুকে ঝলসে দিয়েছে দূর্বত্তরা ॥ আটক-১ (ভিডিও)

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ   ময়মনসিংহের নান্দাইলে লিপা আক্তার (৩২) নামে এক গৃহবধুকে দাহ্য পদার্থ নিক্ষেপ করে মুখমন্ডল ও শরীর ঝলছে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা।

 

ঘটনাটি ঘটেছে আজ ভোররাতে। পরে বাড়ির লোকজন তাকে প্রথমে নান্দাইল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

 

চিকিৎসকরা জানিয়েছে, লিপা বর্তমানে শঙ্কামুক্ত। ধাহ্য পদার্থে তার শরীরের ২০ ভাগ ঝলসে গেছে। এদিকে এঘটনায় পুলিশ শরীফ নামে একজনকে আটক করেছে। আহত লিপা ও তার স্বামীসহ পরিবারের অভিযোগ, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে লিপা শরীরে এসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে।

 

নান্দাইল থানার ওসি আতাউর রহমান জানান,  এঘটনায় পুলিশ শরীফ নামে একজনকে আটক করেছে। নান্দাইল উপজেলার চন্ডিপাশা ইউনিয়নের চামারুল্লাহ গ্রামের ফরিদ মিয়ার স্ত্রী লিপা আক্তার তার বসত ঘরে ৩ সন্তানকে নিয়ে ঘুমাচ্ছিলেন। শনিবার ভোরে কয়েকজন প্রতিবেশি ঘরের দরজা ভেঙ্গে প্রবেশ করে লিপার শরীরে দাহ্য পদার্থ নিক্ষেপ করে চলে যায়। এসময় তার দিনমজুর স্বামী ফরিদ মিয়া নরসিংদী কাজে ছিলেন।

 

পরে লিপার ডাকচিৎকারে বাড়ীর লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নান্দাইল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করে। দাহ্য পদার্থে লিপার শরীরের স্পর্শকাতর বিভিন্নস্থান ঝলসে গেছে।

 

হাসপাতালে ভর্তি লিপা আক্তার জানায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে একই গ্রামের শরীফ, রমজান, মাসুদ ও নাজিম উদ্দিন ভোরে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তার স্বামীকে না পেয়ে তার শরীরে এসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়। এদিকে স্বামী ফরিদ মিয়া এসিড নিক্ষেপকারিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:২৬ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ২৯, ২০১৭