|

প্রতিবাদ ধর্মঘটের কারনে অচল ময়মনসিংহ চিকিৎসা সেবা

স্টাফ রিপোর্টারঃ  ময়মনসিংহ নগরীর বেশ কয়েকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ফার্মেসীকে ভ্রাম্যমাণ আদালত জরিমানা করারা প্রতিবাদে বন্ধ করা হয়েছে জেলা সদরের সব ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও ফার্মেসি।

 

প্রতিদিন সকাল থেকে চিকিৎসা সেবায় জড়িত প্রতিষ্ঠান গুলো খোলা রাখা হলেও আজ বুধবার দুপুর ১টা পর্যন্ত কোনো প্রতিষ্ঠানই খোলেনি।

 

মঙ্গলবার রাতে ময়মনসিংহে ল্যাবএইডকে ১০লক্ষ ও পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার কর্তৃপক্ষকে ৬ লাখ, প্রান্ত ও সেফওয়েকে ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ১ লক্ষ করে, পিওর ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে ২ লক্ষ, মেডিসিন কর্ণারকে ৭৫ হাজার, পিপলস ফার্মেসীকে ৫০ হাজারসহ মোট ২১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এসময় আট জন স্টাফকে প্রত্যেককে দুই মাস করে কারাদন্ড দেয়া হয়েছে। এছাড়া  ২ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

 

এর প্রতিবাদে এসব প্রতিষ্ঠান রাত থেকেই বন্ধ ঘোষণা করে মালিক সমিতি। সমিতির নেতারা ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়ক অবরোধ ও মিছিল করে শহরের সব ফার্মেসি, প্রাইভেট ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার বন্ধ করে দেন। এসময় ব্যবসায়ীদের সাথে পুলিশ-র‍্যাবের সঙ্গে ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়। এ সময় আহত হয় বেশ কয়েকজন। তাদের মমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

 

র‍্যাব জানায়, বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান মেয়াদোত্তীর্ণ রিএজেন্ট দিয়ে হার্ট অ্যাটাকের কারণ, বিভিন্ন হরমোন নির্ণয় করছিল। এসব প্রতিষ্ঠানে রোগ সংক্রমণ প্রতিরোধ পরিবেশ ছিল না। তাই তাদের জরিমানা করা হয়।

 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে, ক্লিনিক-ডায়াগনস্টিক মালিক সমিতির পক্ষ থেকে জানানো হয়, করনীয় বিষয় গুলো মিটিং এর পর আনুষ্ঠানিক ভাবে জানানো হবে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ২:৪৬ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ২১, ২০১৬