|

চলতি বছরেই ময়মনসিংহে বিভাগীয় সবকটি দপ্তর চলে আসবে

mymensingh-bivag

স্টাফ রিপোর্টারঃ  ময়মনসিংহ বিভাগ এর সার্বিক উন্নয়নে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা অত্যন্ত আন্তরিক। নবগঠিত বিভাগীয় সদরকে পরিবেশবান্ধব, মানসম্মত ও একটি আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলতে চান প্রধানমন্ত্রী। ব্রহ্মপূত্র নদের দুপাড়ে নান্দরিক ও কাঙ্খিত এই স্বপ্নের শহর গড়তে প্রয়োজনীয় টাকার যোগান যোগন দিবে সরকার । নয়া বিভাগীয় সদরদপ্তরের জন্য প্রায় সাড়ে ৪ হাজার একর জমি অধিগ্রহন ও ক্ষতিপূরণ বাবদ ৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করা হবে এবং সেই সাথে চলতি ২০১৬ সালের শেষ নাগাদ ময়মনসিংহ বিভাগীয় পর্যায়ে সবকটি দপ্তর প্রধানের অফিস চলে আসবে।

 

এছাড়া আগামী ২০১৭ সালের মধ্যে মাধ্যমিক উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড ময়মনসিংহের কার্যক্রম শুরু হবে। শহরের ভিতরের যানজট নিরসনে ৪টি প্রশস্ত এবং ৬টি ট্রাফিক মোড়কে প্রয়োজনীয় প্রশস্ত করা হবে। এমনটাই জানিয়েছেন ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জি. এম সালেহ উদ্দিন।

 

তিনি আরো জানান, এ পর্যন্ত বেশকয়টি বিভাগীয় দপ্তর চালু হয়েছে। প্রাথমিক ও গণশিক্ষা, পরিবার পরিকল্পনা, উপ ভূমিসংস্কার কমিশনার, ডিভিশনার কন্ট্রোলার অব একাউন্স, পিএসসি’র সদস্যের অফিসসহ আরো কয়েকটি বিভাগীয় কর্মকর্তা খুব শিগগির যোগদান করবেন। বিভাগীয় কমিশনার ও ডিআইজিসহ বিভাগীয় অফিসসমূহ স্থাপনের জন্য ১১৪ একর জমি অধিগ্রহনের প্রশাসনিক অনুমোদন ইতিমধ্যেই পাওয়া গেছে।

 

ময়মনসিংহ বিভাগ প্রতিষ্ঠার বর্ষপুর্তি উপলক্ষে “প্রতিষ্ঠার এক বছর- প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা” শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ময়মনসিংহ জেলা নাগরিক আন্দোলন ও উন্নয়ন সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে শহরের টাউন হলের অ্যাডভোকেট মাহমুদ আল নুর তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়ামে বৃহস্পতিবার রাতে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। জেলা নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি। জাতীয় সঙ্গীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু হয় এরপর বিভাগ প্রতিষ্ঠার এক বছর উপলক্ষে কেক কেটে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি। বিভাগ প্রতিষ্ঠার এক বছর উপলক্ষে – প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা নিয়ে জেলা নাগরিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমিন কালাম বিভাগ উন্নয়নে সরকারের কাছে ৩০টি বিভিন্ন দাবী উপস্থাপন করেন।

 

বিভাগ প্রতিষ্ঠার বর্ষপুর্তি অনুষ্ঠানে ময়মনসিংহ বিভাগের উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা করা হয়। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সালাহ উদ্দিন আহমেদ মুক্তি এমপি, ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনার জি.এম সালেহ উদ্দিন, ময়মনসিংহ রেঞ্জ ডিআইজি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন, জেলা প্রশাসক মোঃ খলিলুর রহমান, ময়মসনসিংহ পৌর মেয়র ইকরামূল হক টিটু, বীর মুক্তিযোদ্ধা ম. হামিদ, ময়মনসিংহ মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি এহতেশামূল আলম, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, অ্যাডভোকেট এএইচএম খালেকুজ্জামান, লে.কর্ণেল (অব.) নূর খান, জামালপুর জেলা আওয়ালীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আতিকুর রহমান ছানা, জেলা জাসদের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু, সাংবাদিক নিয়ামূল কবির সজল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মনিরা সুলতানা মনি ও আশরাফুল ইসলাম, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সহ-সভাপতি শাহাদাত হোসেন খান হিরু, হারুন অর রশিদ তালুকদার ও কাজী আজাদ জাহান শামীম প্রমূখ।

 

ময়মনসিংহের অস্তিত্ব অনেক আগে থেকেই।  ব্রিটিশ ভারত সরকার ১৭৮৭ খ্রিস্টাব্দের ১লা মে ময়মনসিংহ জেলা এবং ১৮২৯ সালে ঢাকা বিভাগ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। পরে অবশেষে ঢাকা বিভাগ প্রতিষ্ঠার ১৮৬ বছর পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ১৩ অক্টোবর ময়মনসিংহকে বাংলাদেশের অষ্টম প্রশাসনিক বিভাগ প্রতিষ্ঠা করেন।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৫৯ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ১৯, ২০১৬