|

সর্বশেষ

আদালতের নির্দেশ

ময়মনসিংহে হত্যার ২মাস পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন

গফরগাঁও প্রতিনিধি:  ময়মনসিংহ এর গফরগাঁওয়ে বিষ প্রয়োগে হত্যার দুই মাস পর শারমিন আক্তার (২২)নামে এক গৃহবধুর মরদেহ তার স্বামীর দায়ের করা হত্যা মামালায় আদালতের নির্দেশে কবর থেকে উত্তোলন করেন নিবার্হী ম্যাজিস্টেট শেখ শামছুল আরেফিন ও মালার তদন্ত কর্মকতা গফরগাঁও থানার ওসি (তদন্ত) হাবিবুর রহমান।

বৃহস্পতিবার দুপুরে  উপজেলার পাচুঁয়া গ্রামে ওই গৃহবধূর পিতার বাড়ির পারিবারিক কবরস্থান থেকে মরদেহ উত্তোলন করা হয়।

জানা যায়, গত ২০১২ সালের ২১ জুন উপজেলার রাওনা ইউনিয়নের পাচুয় গ্রামের আবু হানিফার ছেলে রাজিব মিয়া  একই গ্রামের সবুজ মিয়ার মেয়ে শারমিন আক্তার কোর্টের মাধ্যমে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। এ নিয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে নানা বিষয় নিয়ে বিবাদ দেখা দেয়। এক পর্যায়ে তা মিটেও যায়।

 

পরে গত বছরের ৩০ আগষ্ট গৃহবধূ শারমিন স্বামীর বাড়িতে অসুস্থ হয়ে পড়লে গফরগাঁও হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে শারমিনকে তার বাবার বাড়ির লোকজন জোর পূর্বক তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে স্ত্রীকে উদ্ধারে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। এ অবস্থায় গত চলতি বছরের ১২ আগষ্ট শারমিন বাবার বাড়ি থেকে পালিয়ে স্বামীর বাড়িতে আসার পথে বাড়ির লোকজন টের পেয়ে শারমিনকে মারধোর করে ও বিষ খাইয়ে হত্যা করে।

 

এ অবস্থায় গত ১৭ আগষ্ট ওই গৃহবধূর স্বামী সবুজ মিয়া ময়মনসিংহের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে ১৫ জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার প্রেক্ষিতে আদালত লাশ উত্তোলন করে ময়না তদন্তের নির্দেশ দেন।

 

ছবিঃ ফাইল ছবি

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ১:১৮ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ১৪, ২০১৬