|

আনন্দ মোহন কলেজের সংক্ষিপ্ত ইতিহাস

amc 3

লোকলোকান্তর ডেস্কঃ    ‘আনন্দ মোহন কলেজ’ সংক্ষেপে এ এম সি ময়মনসিংহ তো বটেই বাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ কলেজগুলোর মধ্যে অন্যতম বললে ভুল হবে না। কলেজটির রয়েছে নানান গৌরবময় ঐতিহ্যের ইতিহাস । এ প্রতিষ্ঠানে লেখাপড়া করেছেন দেশের বরেণ্য ব্যক্তিবর্গ। অনেক ময়মনসিংহবাসী আনন্দ মোহন কলেজকে বৃহত্তর ময়মনসিংহের অক্সফোর্ডও বলে থাকে।

 

এই কলেজের যাত্রা ব্যারিস্টার আনন্দ মোহন বসুর হাতে ১৮৮৩ সালের ১লা জানুয়ারি  তার পৈতৃক ভিটা বর্তমান সিটি কলেজিয়েট স্কুলে ‘ময়মনসিংহ ইনস্টিটিউটশন’ নামে হয়েছিল। ১৮৯০ সালের এপ্রিল মাসে ‘ময়মনসিংহ ইনস্টিটিউটশন’ নাম পরিবর্তন করে ‘ময়মনসিংহ সিটি কলেজিয়েট স্কুল’ নামে অভিহিত করা হয়। পরবর্তীতে ১৯০৮ সালে এ কলেজটি নামকরণ করা হয় ‘ময়মনসিংহ কলেজ’।

 

ঐ সময়ের ময়মনসিংহ জেলার প্রথম মুসলিম গ্র্যাজুয়েট মৌলভী হামিদ উদ্দিন আহমদ কলেজের নামে ২৬ বিঘা জমি দান করেন এবং তাঁর বন্ধু আনন্দ মোহন বসুর নামে কলেজটি প্রতিষ্ঠা করেন। যা ১৯৬৪ সালে সরকারীকরণ করা হয়।

 

১৯০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হলেও ১৯০৯ সালে এ কলেজের কার্যক্রম শুরু হয়।  প্রতিষ্ঠাকালে আনন্দ মোহন কলেজের ছাত্র ছিল মাত্র ১৭৮ জন ও শিক্ষক ছিলেন ৯ জন।

 

বতর্মানে  ১৮টি বিষয়ে অনার্সসহ মাষ্টার্স কোর্সে ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা প্রায় ৩২ হাজার, শিক্ষক  সংখ্যা ২০৭ জন।
মোট ১৫.২৮ একরে অবস্থিত কলেজে অধ্যক্ষ ভবন, শিক্ষকদের আবাস, কর্মচারীদের আবাস, অতিথি ভবন,  শহীদ মিনার, ছাত্রছাত্রী মিলনায়তন, পোস্ট অফিস, বিদ্যুৎ সাবস্টেশন, টেলিফোন বুথ, রূপালী ব্যাংক লিমিটেড বুথ, মসজিদ, বাস ও মাইক্রোবাস রাখার স্থান, খেলার মাঠ, পুকুর, ছাত্রদের ৩টি ও ছাত্রীদের ২টি হোস্টেল, বিএনসিসি ইউনিট এবং রোভার স্কাউট ও গার্লস গাইড ভবন অবস্থিত।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ১১:৫৩ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ০৯, ২০১৬