|

বখাটেদের হাতে স্কুল ছাত্রী লাঞ্চিত বিচারের দাবীতে সড়ক অবরোধ

পূর্বধলা প্রতিনিধিঃ  মঙ্গলবার দুপুরে পূর্বধলা উপজেলার জালশুকা কুমুদগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্ঠম শ্রেনীর ছাত্রী ফারিয়া রহমান প্রাপ্তি কে বখাটে শাহাদাত হোসেন ও তার সঙ্গীরা স্কুলে প্রবেশ করে  লাঞ্চিত করে। এ সময় পরীক্ষার হলে ছাত্র/ছাত্রীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং আসামী গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে  স্কুলের ছাত্র/ছাত্রীরা পরীক্ষা বন্ধ করে শ্যামগঞ্জ- ময়মনসিংহ সড়ক অবরোধ করে প্রতিবাদ জানায়
লাঞ্চিত ফারিয়া রহমান প্রাপ্তি জানায় আজ মঙ্গলবার অষ্ঠম শ্রেনীর মডেল টেষ্ট পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল। পরীক্ষার ঠিক আগ মূহুত্বে স্কুলের পিছনের গেইটে দারিয়ে এক বান্ধবির সাথে কথা বলার সময় শাহাদাত হোসেন ও তার সঙ্গীরা তার পথ রোধ করে এ সময় সে দৌরে পরীক্ষার হলে চলে আসে, সেখানেও শাহাদাত হোসেন ও তার সঙ্গীরা পরীক্ষার হলে তার পথ রোধ করার চেষ্টা করে। পরে ভয়ে মেয়েটি পরীক্ষার হল থেকে দৌরে শিক্ষকদের রুমে চলে য়ায় বখাটে শাহাদাত ও তার সঙ্গীরা সেখানে গিয়ে মেয়েটির গালে চর তাপ্পর দিয়ে তাকে হত্যা ও বাড়ী থেকে উঠিয়ে নিয়ে য়াওয়ার হুমকি দেয়। এ ঘটনায় ছাত্রী এবং তার পরিবার চরম আতঙ্কে রয়েছে।
স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক আমিনুল ইসলাম জানান, দুপুর বেলায় শিক্ষকরা নামাজে ছিল এই ফাঁকে শাহাদাত হোসেন ও তার সঙ্গীরা মেয়েটি কে লাঞ্চিত করে। আমি একা তাকে রক্ষা করতে পারিনি।
পরে এ ঘটনার বিচার বখাটে শাহাদাতকে গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে পরীক্ষা বন্ধ করে স্কুলের ছাত্র/ছাত্রীরা শ্যামগঞ্জ- ময়মনসিংহ সড়ক অবরোধ করে রাখে
খবর পেয়ে পূর্বধলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নূর হোসেন সজল গটনা স্থলে পৌছলে ছাত্র/ছাত্রীরা আরো বিক্ষোপ্ত হয়ে উঠে। এ সময় ছাত্র/ছাত্রীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে আসামী গ্রেফতার ও বিচারের জন্য ১২ ঘন্টা  আল্টি মেটাম দেয় এ সময়ের ভিতর আসামী গ্রেফতার করতে না পারলে আবার অবরোধ চলবে বলে ছাত্র/ছাত্রীরা জানিয়ে দেয়।
পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকতার আশ্বাসে ছাত্র/ছাত্রীরা অবরোধ তুলে নেয়। তবে পরীক্ষা বন্ধ রয়েছে।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:১৩ অপরাহ্ণ | অক্টোবর ০৪, ২০১৬