|

মুক্তাগাছায় ঈদের আগের দিন সন্ত্রাসী হামলা বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট

img0626a

 

মুক্তাগাছা প্রতিনিধি ঃ মুক্তাগাছার শ্যামপুর জগন্নাথবাড়ী পশ্চিম পাড়া ঈদের আগের দিন পরিকল্পিতভাবে একটি চিহ্নিত ডাকাত দল বাড়ী ঘরে হামলা চালিয়ে এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে জনমনে ভয় ভীতি সঞ্চার করে বাড়ির লোকজনদের মারধর করে এবং অবৈধভাবে ঘরে প্রবেশ করে ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। ঘরে রক্ষিত সুকেছ ভেঙ্গে নগদ ৩০ হাজার টাকা, ২ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগে জানা যায়, শ্যামপুর জগন্নাথবাড়ী পশ্চিম পাড়া গ্রামের আক্কাছ আলীর ২ পুত্র ঢাকায় ১টি কোম্পানিতে চাকুরী করে। ঈদের আগের দিন বেতন বোনাস পেয়ে ঈদ করতে বাড়িতে আসে। উক্ত খবরটি একই এলাকার চিহ্নিত ডাকাত ছাইদুল তার ভাই সাইফুল ও রাজন জেনে পরিকল্পিতভাবে তাদের সহযোগী জাকারুল, আজাহার, মিলন, আশরাফুল, আঃ রাজ্জাকসহ অজ্ঞাত ৪/৫ জন নিয়ে ঈদের আগের দিন বিকালে অতর্কিত ভাবে আক্কাছের বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে বাড়িঘর ভাংচুর ও ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে টাকা-পয়সা লুট করে। এসময় আক্কাছ আলী বাধা দিলে আক্কাছ আলীকে ব্যাপক মারধর করে। এ সময় তা স্ত্রী শামছুন্নাহার বাধা দিতে গেলে তাকেও মারধর করে। তার ২ পুত্র আনিছুর রহমান ও ইসমাইল তাদের পিতাকে বাঁচাতে গেলে তাদেরকেও মারধর করে। আক্কাছ আলী জানান, ডাকাত সাইদুল এর ছবি চিহ্নিত ডাকাত হিসেবে মুক্তাগাছা থানায় অপরাধীর তালিকায় ছবি সহ নাম রয়েছে। অপর ডাকাত সাইফুল পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর হ্যান্ডকাফ সহ পুলিশের হাত থেকে পালিয়ে যায়। ডাকাত রাজন পানি সেচের মটর চুরি করার সময় জনতা হাতে নাতে ধরে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাকে ১ মাসের জেল দেন। সমপ্রতি জেল থেকে বের হয়ে উল্লেখিত ডাকাতদের নিয়ে এলাকায় ত্রাসের রাজ্য কায়েম করছে। উক্ত ঘটনার সময় এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করায় তাদের ভয়ে কেউ এগিয়ে আসতে সাহস পায়নি। বর্তমানে ডাকাত সাইফুল গংদের ভয়ে আক্কাছ আলী নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছে। এ ব্যাপারে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকষর্ণ করা হচ্ছে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৪৪ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৬