|

মদনে আদালতের আইন উপেৰা করে ভূমি দখলের পায়তারা

সুদর্শন আচার্য্য, মদন (নেত্রকোনা)ঃ আদালতে মামলা থাকার পরেও নেত্রকোনার মদন উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের বড়খাগুরিয়া গ্রামের আব্দুল মন্নাফের বাড়ীর ১৫ টি গাছ কর্তন, পুকুর থেকে ১০হাজার টাকার মাছ নিধন একটি টয়লেট ভেঙে দিয়েছে প্রতিপৰের লোকেরা।
অভিযোগে প্রকাশ, বড় খাগুরিয়া গ্রামের আব্দুল মন্নাফের সাথে পার্শ্ববর্তী বাড়ীর শাহাব উদ্দিনের জমি সংক্রান্ত বিরোধ রয়েছে। এ নিয়ে নেত্রকোনার বিজ্ঞ মদন সহকারি জজ আদালতে মামলা নং ৪৩/২০১৩ মামলা চলছে। মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ার আগেই প্রভাবশালী শাহাব উদ্দিনের লোকজন মন্নাফ মিয়াকে গ্রাম ছাড়া করার লৰে নান রকম হুমকি এমনকি বাড়ীর গাছপালা কর্তন টয়েলেট ভাঙা পুকুরের মাছ মারাসহ নানা ভাবে হয়রানি করছে । এমনকি মামলায় যাতে এলকার কেউ স্বাৰী না দেয় তার জন্য স্বাৰীদের কেউ নানা ভাবে হুমকি প্রদান করছে। এ ব্যাপারে রোববার মদন উপজেলার বড় খাগুরিয়া গ্রামে সরেজমিনে গেলে,ইউপি সদস্য সন’ুস খাঁসহ এলাকারগণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ আলমীন,কামর্বল, উজ্জল, আরাধন, গোলাম কাদীর, রতন, মস’ু আহম্মদ সাথে দেখা ও কথা হয়। তারা জানান, মন্নাফ মিয়া আটপাড়া উপজেলা থেকে এখানে এসে বাড়ী করেছেন। নিরীহ পেয়ে প্রভাবশালী শাহাব উদ্দীনের লোকজন মন্নাফ মিয়ার লোকজনের উপর অমানবিক নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে, যাতে তারা গ্রাম ছাড়া হয়ে যায়। আমরা এই নিরীহ পরিবারের উপর নির্যাতনকারীদের শাস্তি দাবি জানাচ্ছি।
নেত্রকোনায় সড়ক ও জনপথ বিভাগে কর্মরত মামলার প্রতিপৰ শাহাব উদ্দীন জানান, আমাদের জায়গার গাছ টয়লেট ও পুকুর তাই আমাদের যা করার করবো এতে অন্য লোকের বলার কি আছে ।
মন্নাফ মিয়া জানান, জায়গা নিয়ে মামলা চলছে আদালতের রায় আমরা মেনে নিব কিন’ মামলা নিস্পত্তি হয়ার পূর্বেই আমাদের উপরে ও গাছ পালা টয়লেট ও পুকুরের মাছ মেরে নিয়ে অত্যাচার চালাচ্ছে।
ইউপি চেয়ারম্যান সাফায়েত উলৱাহ রয়েল জানান, অন্য এলাকা থেকে ছেড়ে আসা মন্নাফ মিয়ার পরিবার খুবই ভদ্র ও নিরীহ বিষয়টি মিমাংশার করার জন্য উভয় পৰকে আহ্বান করলে মন্নাফ মিয়ার পরিবার সাড়া দিলেও শাহাব উদ্দীনের পরিবার আসেনি তাই বিষয়টি নিস্পত্তি করা সম্ভব হয়নি।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৫৬ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৬