|

পূর্বধলায় সরকারি গাছ কেটে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা

index

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ঃ জেলার পূর্বধলা উপজেলার বিশকাকুনি ইউনিয়নে স’ানীয় সরকার দলীয় লোকজনের প্রত্যক্ষ ও পরোৰ মদদে স’ানীয় কতিপয় দুর্বৃত্ত প্রকাশ্যে ও রাতের আধারে সড়কের পাশে সরকারি পুরনো মূল্যবান মেহগনি ও আকাশি গাছ কেটে নিয়ে যাচ্ছে। গত কিছু দিনে অর্ধকোটি টাকার শতাধিক গাছ কেটে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এতে করে এলাকায় সবুজ বনাঞ্চল উজার হয়ে পরিবেশ ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, জেলার পূর্বধলার বিশকাকুনি ইউনিয়নের বাদেপুটিকা বাজার হতে সামছুদ্দিন মেম্বারের বাড়ি পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার সড়কের দুই পাশে শতাধিক গাছ বিভিন্ন সময় রাতের আধারে ও সরকারী ছুটির দিনে কেটে ফেলেছে স’ানীয় কয়েক দুর্বৃত্ত। এদের মধ্যে বিল্লাল হোসেন ও আবুল কাসেম জড়িত রয়েছে। এদেরকে প্রত্যক্ষ ও পরোৰভাবে সহায়তা করছেন স’ানীয় সরকার দলীয় কয়েক নেতা। সরকার দলের প্রভাবশালী নেতাদের ছত্রছায়ায় থাকায় তাদেরকে বাধা দিতে সাহস পায়না কেউ।  শক্রবার সকালে গাছ কাটা শুর্ব করে দুর্বৃত্তরা। একটি আকাশি ও দুটি মেহগনি গাছ কেটে ফেলে দুর্বৃত্তরা। এলাকাবাসী বিষয়টি ইউএনকে জানায়। পরে ইউনিয়ন ভুমি সহকারী কর্মকর্তা ও ইউএনওর অফিস সহকারী এলাকার লোকজনকে নিয়ে ঘটনাস’লে গিয়ে গাছকাটা বন্ধ এবং কাটা গাছগুলো আটক করেন। এদিকে কাটা গাছগুলোকে নিয়ে যেতে স’ানীয় একটি মহল তৎপর হয়ে উঠেছে।
বিশকাকুনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কাসেম মন্ডল বলেন, সরকারী গাছ কাটার কথা শুনেছেন। নায়েব সাব এসেছেন, বিষয়টি দেখছি।
ইউনিয়ন ভুমি সহকারী (নায়েব) মো. শফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ইউএনও মহোদয়ের নির্দেশে কাটা গাছগুলো আটক করা হয়েছে। ভুমি অফিসে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।
পূর্বধলা ইউএনও মোহাম্মদ নূর হোসেন জানান, সরকারী গাছকাটা বন্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস’া গ্রহন করা হচ্ছে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৩৬ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০৯, ২০১৬