|

কটিয়াদীতে লোডসেডিংয়ে অসনীয় যন্ত্রনা, অতিষ্ঠ গ্রাহকরা

ছাইদুর রহমান নাঈম,কটিয়াদী থেকে,  কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে ঘন ঘন বিদ্যুতের লোডসেডিংয়ে অতিষ্ঠ হয়ে অসহনীয় নরক যন্ত্রনা ভোগ করলেও রহস্যজনক কারণে এর পরিত্রাণ মিলছেনা বলে অভিযোগ ভোক্তভোগি মানুষজনের।

বর্তমানে কটিয়াদীবাসীর ধৈর্য্যরে সীমা অতিক্রম করায় বিদ্যুতের নরক যন্ত্রনা থেকে রেহাই পেতে  ও  ঘনঘন লোডসেডিংয়ে মুল কারণ খুঁজে বের করার জন্য কিশোরগঞ্জ জেলা ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নিকট দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় অভিজ্ঞমহল। বিদ্যুতের ঘন ঘন লোডসেডিংয়ে ভোগান্তিতে কটিয়াদীবাসী  এখন চরমভাবে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে। যার ফলে দূবির্ষ জীবন যাপন করতে হচ্ছে তাদের। দিন ও রাতে বেশিরভাগ সময় বিদ্যুৎ না থাকার ফলে গরমের অতিষ্ঠ যন্ত্রনা ভোগ করতে হচ্ছে শিশু, কিশোর, বৃদ্ধা, শিক্ষার্থী, অসুস্থ্য রোগীসহ নানা শ্রেণি পেশার মানুষ । লোডসেডিংয়ের নামে প্রতিদিন অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে দিন ও রাতের অধিকাংশ সময় বিদ্যুৎ না থাকায় স্বাভাবিক পড়াশোনায় ব্যঘাত ঘটছে শিশু শ্রেণি থেকে শুরু করে কলেজ পড়–য়া সকল শিক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে। যার ফলে পরীক্ষায় ভালো ফলাফল নিয়ে শঙ্কায় ভোগছে শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকগণ। দিনের বেলা প্রচন্ড রোদে প্রচন্ড গরম থাকায় বাসা-বাড়ি, অফিসে ও হাসপাতালে স্বস্তি মিলছেনা কর্মজীবী লোকজন, গৃহিনী, শিশু-বৃদ্ধা সহ অসুস্থ্য মানুষজনের। রাতে হলেই অন্ধকারে নিমজ্জিত হয় পৌর এলাকা।

তারপরও কারো নজরেআসছেনা কটিয়াদীবাসীর এ অসহনীয় র্দূভোগের কথা। প্রতিদিন দীর্ঘসময় বিদুৎ না থাকা ও ঘনঘন লোডসেডিং  । বর্তমানে অতিরিক্ত লোডসেডিং এর কারণে  চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। বিদ্যুতের অসনীয় যন্ত্রনা ভোগের কারণে যেকোন সময় কটিয়াদীবাসীর  মধ্যে গণবিষ্ফোরণ ঘটতে পারে বলেও আশংকা প্রকাশ করছে স্থানীয় অবিজ্ঞমহল।

রাত ১২ টার পর যেখানে বিদ্যুতের লোড কমার কথা সেখানে বাড়তে থাকে বিদ্যুতের অতিরিক্ত লোড। অতিরিক্ত লোডের কারণে বিভিন্ন স্থানে ঘন ঘন বিকল হচ্ছে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার। এসকল বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার মেরামতের নাম করে বিদ্যুৎ বিভাগের  একশ্রেণির কর্মকর্তা কর্মচারীগণ গ্রাহকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা। কটিয়াদী পল্লী বিদ্যুত অফিস কিছুদিন দালাল মুক্ত থকলেও আবার শুরু হয়েছে তাদের উৎপাত। ঘনঘন লোডসেডিংয়ে মুল কারণ খুঁজে বের করার জন্য কিশোরগঞ্জ জেলা ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নিকট দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় অভিজ্ঞমহল।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৩:১৫ অপরাহ্ণ | সেপ্টেম্বর ০১, ২০১৬