|

নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবে ——— বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য

Trishal Pic (14-2)

এইচ.এম জোবায়ের হোসাইন, ত্রিশাল:   জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন দেখেছিলেন বাংলাদেশ আয়তনের দিক থেকে ছোট রাষ্ট্র হলেও মর্যাদার দিক দিয়ে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ রাষ্ট্রে পরিণত হবে। তিনি তাঁর সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রূপদান করেছেন। ঠিক একইভাবে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ও সময়ের দিক থেকে নবীন তবে অদূর ভবিষ্যতে এই বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত হবে। এই বিশ্ববিদ্যালয় দ্রুত সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বিধায় সরকার আমাদের আরো বরাদ্দ দিচ্ছে।’ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে উপাচার্য বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয় হলো মগজের জায়গা, জ্ঞান চর্চা করার জায়গা। নিজের মনকে শুধু ক্লাসরুমের মাঝে বন্দি করে রাখলে চিন্তা সংকীর্ণ হয়ে যায়। তাই ক্লাসরুমের চার দেয়ালকে মনের মাঝ থেকে মুছে ফেলতে হবে।’
তিনি গতকাল রোববার জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনির্মিত সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনের শুভ উদ্বোধন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার প্রফেসর এ এম এম শামসুর রহমান সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো: হাবিবুর রহমান, কলা অনুষদের ডিন ও প্রক্টর প্রফেসর ড. মো: মাহবুব হোসেন, অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মো: নজরুল ইসলাম, লোকপ্রশাসন ও সরকার পরিচালনবিদ্যা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান শাহ্জাদা আহসান হাবিব, ফোকলোর বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মো: সাইফুল ইসলাম,  আইন ও বিচার বিভাগের ভারপ্রাপ্ত বিভাগীয় প্রধান মো: আহসান কবীর এবং পরিচালক(পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) মো: হাফিজুর রহমান প্রমূখ।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো: আমিনুল ইসলাম। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন চারুকলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাসুম হাওলাদার।
জাতীয় কবি কাজী নজরলি ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ), উপাচার্য দপ্তর এস.এম. হাফিজুর রহমান জানান, ১০তলা ভিত্তি বিশিষ্ট দুইটি একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তর ২০১৪ সালের ১৬ এপ্রিল স্থাপন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম। মাত্র দুই বছর শেষেই এই ভবনেরই উদ্বোধন করলেন তিনি। পাশাপাশি নির্মিত দুইটি একাডেমিক ভবন একটি প্লাজার মাধ্যমে সংযুক্ত থাকবে। এর একটি সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবন এবং অপরটি ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ ভবন। ভবনটি দুইটি উইং এর সমন্বয়ে (প্রতিটি ফ্লোর ১৩ হাজার বর্গফুট বিশিষ্ট) ও মাঝখানে ১০ হাজার বর্গফুট প্লাজাসহ ১০তলা পর্যন্ত নির্মিত হবে এবং এর নির্মাণ আগামী ২০১৮ সালে সমাপ্ত হওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:৪৩ পূর্বাহ্ণ | আগস্ট ১৫, ২০১৬