|

সর্বশেষ

আসছে ‘আওয়ামী সজীব ওয়াজেদ জয় লীগ’

অনলাইন ডেস্কঃ   নামের সঙ্গে ‘আওয়ামী’, ‘বঙ্গবন্ধু’, ‘বঙ্গমাতা’ জুড়ে দিয়ে শতাধিক সংগঠন গড়ে ওঠার পর এবার ‘বাংলাদেশ আওয়ামী সজীব ওয়াজেদ জয় লীগ’ নাম নিয়ে আসছে আরেকটি সংগঠন। তবে সংগঠনটির প্রধান কার্যালয় ঢাকা সিটি করপোরেশনের মধ্যে নয়, কেরানীগঞ্জে। ইতিমধ্যে সংগঠনের সাইনবোর্ড-এর ছবি সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গেছে।

এ সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় সভাপতি হাসু সরদার বলছেন, এমন একটি দল গড়বেন- তা ছিল তার ‘ছোটবেলার স্বপ্ন’। তবে তার এ উদ্যোলগকে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী দেখছেন আরেকটি ‘ধান্দাবাজি’ হিসেবে।

হাসু সরদারের ইচ্ছা, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করে শিগগিরই জাতির সামনে সংগঠনের জানান দেবেন তিনি।“ছোট সময় থেকে এমন একটি সংগঠন করব এমন চিন্তা করে আসছিলাম। বছরখানেক আগে সজীব ওয়াজেদ জয় ভাইয়ের এক চাচাত ভাই শামীম ভাইসহ আমার কয়েকজন উপদেষ্টাদের পরামর্শে অনেক পরিশ্রম করে এই সংগঠন গড়ে তুলেছি।”

ছয় মাস ধরে পরিশ্রম করে ১০১ সস্যের কেন্দ্রীয় কমিটিসহ কয়েকটি জেলা কমিটি দিয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, শিগগিরই সারা দেশে তার সংগঠনের জেলা কমিটি দেয়া হবে। তার দাবি, এ সংগঠনের সঙ্গে আওয়ামী লীগের ‘অনেক বড় বড় নেতা’ জড়িত।“তবে নাম বলা যাবে না, আমি আমার উপদেষ্টাদের সাথে কথা বলে আপনাকে জানাব।

সংগঠনের তহবিলের বিষয়ে তিনি বলেন বলেন, “উপদেষ্টা কমিটি আছে, আপাতত উনারা দেখছেন।” সংগঠনের ঢাকা জেলার একটি ব্যানারে কেবল ‘সজীব ওয়াজেদ জয় লীগ’ নাম লেখা দেখে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে কেন্দ্রীয় সভাপতি বলেন, “আমাদের এই কমিটির নেতারা শুধু জয় ভাইয়ের নাম লিখেছে, আসলে আমাদের সংগঠনের নাম ‘বাংলাদেশ আওয়ামী সজীব ওয়াজেদ জয় লীগ’।”

এই সংগঠন কারার পর অনেকে ‘অনেক কথা’ বলছে; ঢাকা জেলা কমিটির আহ্বায়ককে ফোন করে গালাগালও করা হয়েছে বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন হাসু।

ব্যনারে ঢাকা জেলা কমিটির কার্যালয়ের ঠিকানা লেখা হয়েছে কালীগঞ্জ বাজার, চৌধুরী মার্কেট, কেরানীগঞ্জ ঢাকা-১৩১০। এই কমিটির আহ্বায়ক রনি আহম্মেদ কেরানীগঞ্জে ব্যবসা করেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দৌহিত্র ও প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়ের নাম ব্যগবহার করে গজিয়ে ওঠা এই সংগঠনের সঙ্গে আওয়ামী লীগের সম্পর্ক আছে কি না জানতে চাইলে ক্ষমতাসীন এ দলের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, “দলের রাজনীতিকে ব্যীবহার করে এসব চাঁদাবাজি, ধান্দাবাজি। তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া উচিত বলে তিনি মনে করেন।

সুত্রঃ আমার সংবাদ

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৩:৩৫ পূর্বাহ্ণ | আগস্ট ০৮, ২০১৬