|

সর্বশেষ

শেরপুরে দমকল বাহিনীর চেষ্টায় জীবন রক্ষা পেল রাজমিস্ত্রি সহকারী

শেরপুর সংবাদদাতা: ২৯ জুলাই ২০১৬, শুক্রবার,
শেরপুরের সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের মধ্যবয়ড়া গ্রামের মৃত জব্বার আলীর ছেলে আলী হোসেন (২৬) একজন রাজমিস্ত্রি সহকারী। মধ্যবয়ড়া বড় মসজিদের সেফটি ট্যাংক পরিষ্কার করার জন্য আজ ২৯ জুলাই শুক্রবার দুপুরে তিনি নেমেছিলেন ট্যাংকের ভেতর। তাৎৰণিকভাবে বিষাক্ত কার্বন ডাইঅক্সাইড গ্যাসে আক্রান্ত হন তিনি। দম বন্ধ হয়ে মৃত্যুর মুখোমুখি দাঁড়িয়েছিলেন। কিন’ কপাল ভাল। দমকল বাহিনীর কর্মীদের ঐকান্তিক চেষ্টা আর এলাকাবাসীর সহায়তায় প্রাণে বেঁচে যান তিনি। বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (মচিমহা) চিকিৎসাধীন রয়েছেন আলী হোসেন।
ফায়ার সার্ভিস ও স’ানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাজমিস্ত্রি সহকারী আলী হোসেন আজ শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে মধ্যবয়ড়া বড় মসজিদের সেফটি ট্যাংক পরিষ্কার করার জন্য ট্যাংকের ভেতর নামেন। দীর্ঘদিন ট্যাংকটি পরিষ্কার না করায় সেখানে বিষাক্ত গ্যাস জমে গিয়েছিল। ট্যাংকের ভেতরে নামার পরপরই তিনি গুর্বতর অসুস’ হয়ে পড়েন এবং তাঁকে উদ্ধার করার জন্য ডাক-চিৎকার দেন। তাৎৰণিকভাবে বিষয়টি জানিয়ে এলাকার কয়েকজন শেরপুরের ফায়ার সার্ভিসে সংবাদ দেন।
সংবাদ পেয়ে শেরপুর ফায়ার স্টেশনের টিম লিডার মো. লুৎফর রহমানের নেতৃত্বে দমকল বাহিনীর কর্মীরা বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘটনাস’লে গিয়ে পৌঁছেন। এরপর তাঁরা এলাকাবাসীর সহায়তায় জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্যাংকের ভেতর নেমে প্রায় আধ-ঘন্টা চেষ্টার পর আলী হোসেনকে উদ্ধার এবং গুর্বতর আহতাবস’ায় শেরপুর জেলা হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন। পরে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য মচিমহায় স’ানান্তর করা হয়।
শেরপুর জেলা হাসপাতালের জর্বরী বিভাগের চিকিৎসা কর্মকর্তা (ইএমও) এম.এ. জব্বার প্রামাণিক আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় বলেন, এ ঘটনায় আহত আলী হোসেন আশঙ্কামুক্ত নন। প্রচন্ড শ্বাসকষ্ট হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে মচিমহায় স’ানান্তর করা হয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:০৯ অপরাহ্ণ | জুলাই ২৯, ২০১৬