|

ভালুকায় ১০ টাকার জন্য মানসিক রোগীর হাতে মা খুন ছেলে আহত

মোঃ ফিরোজ খান, ভালুকা থেকে ॥ ভালুকায় ১০টাকার জন্য সুফিয়া খাতুন (৩৫) নামে এক মহিলাকে নির্মমভাবে কুদাল দিয়ে কুপিয়ে খুন করেছে মানসিক রোগী এক যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) সকালে উপজেলার কাঠালী গ্রামে। এ সময় নিহত মহিলার ৮ বছরের এক শিশু ছেলে কুদালের কুপে আহত হয়। তাকে আশঙ্কাজনক অবস’ায় ময়মনসিংহ সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে। খোঁজ পেয়ে স’ানীয় জনতা ঘাতক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।
পুলিশ ও স’ানীয় সূত্রে জানা যায়, সকালে উপজেলার কাঠালী গ্রামের সেনা সদস্য শাহজাহানের স্ত্রী সুফিয়া খাতুন প্রতিবেশি মানসিক অসুস’্য মমতাজ উদ্দিনকে (৩০) ভ্যান গাড়ি দিয়ে পাশের কালেঙ্গামোড় খবিরের দোকান থেকে দুই বস্তা চাল এনে দিতে বলেন। চাল আনার জন্য সুফিয়া একটি ভ্যানগাড়ি জোগাড় করে দেন এবং এ জন্য তাকে ৪০ টাকা দেয়া হবে বলে দেন কিন’ বাড়িতে চাল নিয়ে যাওয়ার পর ১০ টাকা কম দেয়ায় সুফিয়ার সাথে মমতাজের কথা কাটাকাটি হয় এবং এক পর্যায়ে পাশে থাকা কুদাল দিয়ে মমতাজ কুপিয়ে সুফিয়াকে আহত করে। এ সময় সুফিয়ার ডাক চিৎকারে কাঠালী মাঠেরঘাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেনীর ছাত্র তার শিশু ছেলে নাফিস (০৮) দৌড়ে ঘটনাস’লে গেলে তাকেও কুদাল দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। পরে স’ানীয় লোকজন আহত মা ও ছেলেকে ময়মনসিংহ সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) নেয়ার পর সুফিয়া মারা যান।এলাকাবাসি জানান, মমতাজ উদ্দিন শেরপুর জেলার নালিতাবাড়ি উপজেলার তন্তর গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে। মমতাজের মা হামেশা খাতুন (৬০) স্বামী মারা যাওয়ার পর মানসিক রোগী ছেলেকে নিয়ে তার মেয়ে জামাই কাঠালী গ্রামের মো: আলমাস মিয়ার বাড়িতে বসবাস করে আসছে। মমতাজ উদ্দিন প্রায়ই বাড়ি থেকে উধাও হয়ে যেতো এবং কারো সাথে তেমন কথা বলতো না এমনকি রাস্তায় চলাচল অবস’ায় আবলতাবল কথা বলতো। ভালুকা মডেল থানার ওসি (তদন্ত) হযরত আলী জানান, নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য সিএমএইচ থেকে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘাতক মমতাজ কে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মামলার প্রস’তি চলছে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৩৭ অপরাহ্ণ | জুলাই ২১, ২০১৬