|

দুর্গাপুরে সরকারী খাদ্য গুদামে জব্দকৃত ভেজাল চাউল গেল কোথায় ? সংবাদ সম্মেলনে- পৌর মেয়র হাজী সালাম

Durgapur Picture - 18

 

মাসুম বিল্লাহ্‌,দুর্গাপুর ,নেত্রকোনা। ১৮ জুলাই ২০১৬, সোমবার,

নেত্রকোনার দুর্গাপুর পৌর মেয়র হাজী আব্দুস সালাম দুর্গাপুর প্রেস ক্লাবে রবিবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলন করেন।
তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন বিরিশিরিস’ সরকারী খাদ্য গুদামে ১৫ জুলাই ভেজাল ৪শত বস্তা চাউল সহ ২ টি ট্রাক পুলিশ জব্দ করার পর রহস্য জনক কারনে এর কোন হদিছ মিলছে না।
সরকারী খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসিএলএসডি) দেবব্রত বিশ্বাস ১৫ জুলাই পর্যন্ত প্রায় ৯শ টন বি আর-২৮-২৯ জাতের ধান ক্রয় করেন। পাশাপাশি একটি সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অত্যন্ত কৌশলে ধান গুলি বিভিন্ন চাউল কলে পাঠিয়ে এর পরিবর্তে হিরা-২ অনুপযোগি মোটা চাউল গুদামে মজুদ করছে বলে খবর জানা জানি হয়ে গেলে ১৬ ই জুলাই স’ানীয় সুধীজন,জনপ্রতিনিধি, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুলৱাহ্‌ হক, মুক্তিযোদ্ধা ওয়াজেদ আলী, তারা মিয়া ফকির, জাফর আলী, হাবিবুর রহমান, সহ পৌর মেয়র নিজে খাদ্য গুদাম প্রাঙ্গনে পৌছে দেখতে পান ২টি ট্রাক থেকে ভেজাল মোটা চাউল গুদামে প্রবেশ করানো হচ্ছে। এ সময় ইউএনও এলাকায় না থাকায় তাৎক্ষনিক পুলিশ কে অবহিত করা হলে এস আই মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, এসআই মোঃ আসাদুজ্জামান ফোর্স সহ ঘটনাস’লে এসে ৪শ বস্তা চাউল সহ ট্রাক ২টি জব্দ করেন। পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মোকলেছুর রহমান ঘটনাস’ল পরিদর্শনে আসেন। তিনি বলেন ওসি খাঁন হুমায়ুন কবীর তাকে বলেছেন সরকারী চাউল জব্দ করার পুলিশের কোন এখতিয়ার নেই। মেয়রের প্রশ্ন তবে পুলিশ কেন জব্দকৃত মালের তালিকায় মেয়র সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের স্বাক্ষর নেওয়া হলো। তাই তিনি জেলা প্রসাশন সহ উর্ধ্বতন কর্তৃপৰের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সাংবাদিক সম্মেলনে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুলৱাহ্‌ হক সহ স’ানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপসি’ত ছিলেন।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৭:৫৯ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৮, ২০১৬