|

ঝিনাইগাতী সীমান্ত থেকে অস্ত্রসহ ২ আদিবাসী গ্রেফতার

 

ঝিনাইগাতী (শেরপুর) সংবাদদাতা, | ১৭ জুলাই ২০১৬, রবিবার
শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গারো পাহাড়ের সীমান্তে গজনী উলফা আস্তানা থেকে ১৭ জুলাই রোববার শেরপুরের এনএসআই ও ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে ১টি পিস’ল, ৫ রাউন্ড গুলি ও ১টি গ্রেণেডসহ ২ আদিবাসীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, গজনী গ্রামের মৃত- নগেন্দ্র সাংমার ছেলে সৃষ্ট মারাক (৪০) ও মৃত- জাকুব মারাকের ছেলে অনুকুল সাংমা (৫৫)। জানা গেছে, ঘটনার দিন সকাল ১০টায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ ব্যাপারে ডিবি পুলিশের এসআই মোঃ সজীব খান বাদী হয়ে অস্ত্র ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ও প্রত্যৰদর্শী সূত্রে জানা যায়, ঘটনার দিন সকাল ১০টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে শেরপুরের ডিবি পুলিশ ও এনএসআই’র যৌথ উদ্যোগে উলফা আস্তানায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। উক্ত অভিযানে ওই ২ আদিবাসীর বাড়ীতে তলৱাশি চালিয়ে ১টি পিস্তল, ৫ রাউন্ড তাজা গুলি, ১টি তাজা গ্রেণেড ও ২টি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়। পুলিশ ও এলাকাবাসীর ধারনা ভারতের বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠণ ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অফ আসাম (উলফা)’র সদস্যরা গারো পাহাড়ে অবস্থান কালে স্থানীয় আদিবাসীদের সশস্ত্র প্রশিৰন দিয়ে তাদের হাতে অস্ত্র তুলে দেয়। আওয়ামী লীগ সরকার ৰমতায় আসার পর আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের উপর্যপুরি অভিযানে আস্তানা ত্যাগ ও আত্ম গোপানে চলে যায় উলফা’র সদস্যরা। আইন শৃংখলা রৰাকারী বাহিনী বিভিন্ন সময় অভিযান চালিয়ে গারো পাহাড়ে উলফার পরিত্যক্ত আস্তানা ও আশপাশের আদিবাসী পলৱী থেকে বিপুল পরিমাণে গোলা-বারুদ ও অস্ত্র উদ্ধার করে। শেরপুরের ডিবি পুলিশের এসআই মোঃ সজীব খান অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৩৪ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৭, ২০১৬