|

কাল ময়মনসিংহ ১ ও ৩ আসনে উপনির্বাচন ভোটার উপস্থিতি নিয়ে সংশয়

index

 

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ জুলাই ২০১৬, রবিবার
কাল (১৮ জুলাই) সোমবার ময়মনসিংহ ১ হালূয়াঘাট+ ধোবাউড়া ও ময়মনসিংহ ৩ (গৌরীপুর) আসনের উপ- নির্বাচন । নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ন ভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন সকল প্রস্ততি সম্পন্ন করেছেন। বিশেষ নিরাপত্তায় প্রতিকেন্দ্রে ভোটের সরঞ্জামাদী পাঠানো হয়েছে। ময়মনসিংহ ৩ (গৌরীপুর) আসনে আওয়ামীলীগসহ ৫ জন প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। প্রতিদ্বনিদ্ধ প্রার্থীরা হলেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব নাজিম উদ্দিন আহমেদ (নৌকা), জাপা মনোনীত জাতীয় পার্টির উপজেলা সভাপতি সামছুজ্জামান জামাল (লাঙ্গল),, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (ন্যাপ) ময়মনসিংহ জেলা কমিটির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মতিন মাস্টার (কুড়েঁঘর), স্বতন্ত্র উপজেলা বিএনপি (একাংশের) যুগ্ম আহ্বায়ক হাফেজ মোঃ আজিজুল হক (মটরগাড়ী) , ইসলামী ঐক্য জোটের নেতা মাওলানা আবু তাহের খান (মিনার)।
গৌরীপুর উপজেলার নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, নির্বাচনী এলাকার ১০টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় ৮৭টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। এ লক্ষে ৮৭ জন প্রিজাইডিং অফিসার, ১১২ জন সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার, ও ৮২৪ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এছাড়াও আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে প্রতিকেন্দ্রে ১২জন পুলিশ ও একজন সাবইন্সেপেক্টরসহ এক হাজার ২১৮জন পুর্বষ-মহিলা আনসার সদস্য নিয়োজিত থাকবেন। পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবির সমন্বেেয় ৩৫টি স্টাইকিং মোবাইল টিমসহ নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকবে। গৌরীপুরে ৰমতাসীন দলের প্রার্থী ছাড়া নির্বাচনে নেই যেমন প্রচারণা, তেমনি এলাকায় তাঁদের পোস্টারও চোখে পড়ে না। নির্বাচন নিয়ে সাধারণ ভোটারদেরও ভোটে খুব একটা আগ্রহ নেই। সুষ্টু নির্বাচন নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মাঝে রয়েছে সংশয়। সরেজমিনে এমন চিত্র পাওয়া গেছে। শুধুমাত্র আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে জোরেশোরে প্রারণা ছিল। তবে প্রতিদ্বন্দ্বী অপর চার প্রার্থী অনেকটাই প্রচারণাহীন নীরব ছিলেন। শুর্ব থেকে তাদের অভিযোগ ছিলো সরকারী দলের প্রার্থীর সর্মথকদের বাধার কারণে তারা প্রচার প্রচারনা চালাতে পারছে না।
উলেৱখ্য যে, সাবেক স্বাস’্য প্রতিমন্ত্রী ডা. ক্যাপ্টেন মজিবুর রহমান ফকির এমপি গত ২ মে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করায় এ আসনটি শূন্য হয়। এ আসনের ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে নির্বাচনী এলাকা ময়মনসিংহ-৩ গৌরীপুর। এ আসনে মোট ভোটার ২ লক্ষ ২৬ হাজার ২৩৫ জন। এর মধ্যে পুর্বষ ভোটার ১ লক্ষ ১৩ হাজার ৮৯২ জন ও মহিলা ভোটার ১ লক্ষ ১২ হাজার ৩৪৩ জন।
ময়মনসিংহ ১ হালূয়াঘাট+ ধোবাউড়া আসনে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রয়াত এমপি ও সাবেক সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী এড প্রমোদ মানকিনের ছেলে জুয়েল আরেং (নৌকা), জাতীয় পার্টির মনোনীত এডভোকেট সোহরাব হোসেন (লা্‌ঙ্গল)ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সেলিমা খাতুন (আপেল)। প্রশাসন সকল প্রস’তি সম্পন্ন করেছেন। পর্যাপ্ত র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিব সহ নিরাপত্তা বাহিনী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। হালুয়াঘাট ব্যুরো: আজ ১৮ জুলাই সোমবার অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ময়মনসিংহ-১ (হালুয়াঘাট- ধোবাউড়া) সংসদ উপনির্বাচনে ভোট গ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা। উপনির্বাচনে ইতোমধ্যে জমিয়ে তুলেছে প্রার্থীরা। গতকালের আগের দিন পর্যন্ত দলীয় প্রতীক নিয়ে জনগণের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট চাইতে দেখা গেছে এদিকে গত বৃহষ্পতিবার জাতীয় পার্টির প্রার্থী এডভোকেট সোহরাব উদ্দিনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট। ফলে শেষ মূহুর্তে উপ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে ৩ জন প্রার্থী সরে জমিন থেকে জানা যায় প্রচার প্রচারনায় নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী জুয়েল আরেং অন্য ২ প্রার্থী থেকে এগিয়ে আছেন। অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া উপ নির্বাচনে নির্বাচনী এলাকায় জনগণের সমর্থন ও ভালবাসায় জুয়েল আরেং ঐ নির্বাচনী এলাকার নৌকার নতুন মাঝি হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে পিতার স’লাভিষিক্ত হয়ে জনগণের সেবা করবেন বলে অত্র এলাকার জনগণের প্রত্যাশা।এদিকে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস’া নিয়েছে স’ানীয় প্রশাসন। নিরাপত্তার ব্যবস’ার জোরদার করতে প্রশাসন পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি, র‌্যাব, আনসার ভিডিপি মোতায়েন করা হয়েছে। নির্বাচনকে সুষ্ঠু ও নিরপেৰ করার জন্য সবোর্চ্চ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে প্রশাসন। কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে উপনির্বাচনের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হবে বলে প্রত্যাশা করেন স’ানীয় জনগণ।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:২৫ অপরাহ্ণ | জুলাই ১৭, ২০১৬