|

সুন্দর নগরী গড়তে ও জনগণের প্রত্যাশা পূরণে ৫ বছর সর্বস্ব দিয়ে কাজ করেছি– বিশেষ সাক্ষাৎকারে মেয়র টিটু

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ জানুয়ারি ২০১৬, রবিবার,
প্রাচীনতম ও ঐতিহ্যবাহী ময়মনসিংহ পৌরসভার জনসাধারণের স্বপ্ন ও প্রত্যাশা পূরণের গতকাল ১৭ জানুয়ারী রবিবার ছিল পাঁচ বছর পুর্তি। বিগত ২০১২ সালের ১৭ জানুয়ারী ময়মনসিংহের পৌরবাসী যে স্বপ্ন ও প্রত্যাশা নিয়ে ভোট দিয়ে প্রথম মেয়র নির্বাচিত করেছিলেন তা পূরণে সর্বস্ব দিয়ে কাজ করেছেন ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু। গতকাল রবিবার পৌরসভার পাঁচ বছর মেয়াদ পুর্তিতে মেয়র টিটু এক সাক্ষাতকারে বলেন, ১৮৬৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ময়মনসিংহ পৌরসভা। এ পৌরসভার কাঙ্খিত উন্নয়নের লক্ষে ৫বছর আগে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পেয়ে টেলিভিশন প্রতীকে বিজয়ী করেছিল পৌরসভার জনসাধারণ।12250152_789826091127703_4076551171799285737_n

তিনি বলেন , একটি দল থেকে নির্বাচিত হলেও দল-মতের ঊর্দ্ধে থেকে জনগণের প্রত্যাশা পূরণে ঘিঞ্জি, যানজট , জলাবদ্ধতাযুক্ত নগরীর বদনাম মুছে পরিকল্পিত পরিচ্ছন্ন আলোকিত ও সবুজ নগরী হিসেবে ময়মনসিংহকে গড়ে তুলতে আমার সর্বস্ব দিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। জনগণের প্রত্যাশা পূরণে কতটুকু পেরেছি তা পৌরবাসীই ভাল বলতে পারবেন। প্রাচীনতম পৌরনগরীকে নতুন চেহারা দিতে পরিকল্পিত পরিচ্ছন্ন আলোকিত ও সবুজ নগরী হিসেবে ময়মনসিংহকে গড়ে তুলতে নেয়া হয়েছে ২০ বছর মেয়াদের মহাপরিকল্পনা। সে অনুযায়ী কাজ হলে ব্যাপক ভিত্তিক উন্নয়নের ধারায় বদলে যাবে ময়মনসিংহ। দেশের অন্যতম মডেল নগরের পাশাপাশি হয়ে উঠবে দক্ষিণ এশিয়ার সুন্দর বাসযোগ্য নগরগুলোর একটি। গত পাঁচ বৎসরে পৌরসভার উন্নয়নে যে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে তা শুধু কথায় নয় কাজের মাধ্যমে তা প্রতিফলন হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাজনীতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব সহ স’ানীয় বাসিন্দারা। মেয়র টিটু বলেন, নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী পৌরবাসীকে যে প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছিলাম সে প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন করতে পেরেছি বলে আমি মনে করি। পৌরবাসীর দীর্ঘদিনের অন্যতম প্রধান সমস্যা জলাবদ্ধতা অপরিচ্ছন্ন শহর , অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থা, ওয়ার্ডগুলোর রাসত্মা ঘাট বেহাল ছিল। পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ড ঘুরে রাসত্মাঘাট ড্রেনেজ ব্যবস্থার অবকাঠামোগত উন্নয়ন করেছি। দীর্ঘদিনের জরাজীর্ণ বিপিন পার্ক ও পৌর জয়নুল উদ্যান পার্কটিকে সংস্কার, অপরিচ্ছন্ন শহরটিকে একটি পরিচ্ছন্ন ও সুন্দর শহর গড়ার লক্ষ্যে শহরের বিভিন্ন পয়েন্টের আইল্যান্ড গুলোর সৌন্দর্য বর্ধন করেছি। এছাড়াও দেশের বীর সেনানী মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে পানি , হোল্ডিং- ট্যাক্স ও দু-তোলা পর্যন্ত বাড়ির প্ল্যান মওকুফ, মুক্তিযোদ্ধাদের নামে শহিদ মুক্তিযোদ্ধা স্বরণী সড়ক নির্মাণসহ সার্বিক কল্যাণে কাজ করেছি বলে জানান মেয়র টিটু। প্রাচীনতম পৌরবাসীর প্রত্যাশা পূরণে কাঙ্খিত অবকাঠামোগত উন্নয়ন ছাড়াও শহরবাসীর যে স্বপ্ন ও প্রত্যাশা ছিল তা গত পাঁচ বছরে অনেকটাই পূরণ হয়েছে অভিমত ব্যক্ত করেন পৌরসভার স্থানীয় জনসাধারণ ও বাসিন্দারা।
পৌরসভার সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার ২১টি ওয়ার্ড গুলোকে ওয়ার্ড ভিত্তিক চাহিদা অনুযায়ী অগ্রাধিকার ভিত্তিতে উন্নয়ন কাজ হয়েছে। পৌর নগরীতে প্রায় ১৫০ কি. মি. পাকা সড়ক নির্মাণ, পূর্ণ নির্মাণ ও সংস্কার করা হয়েছে। প্রধান সমস্যা হিসেবে জলাবদ্ধতা নিরসনের লড়্গ্যে পৌর নগরীতে প্রথমবারের মত প্রায় ১৪ কি.মি আন্ডারগ্রাউন্ড ড্রেনেজ ব্যবস্থা, প্রায় ৫০ কি.মি. আর সি সি ড্রেন নির্মাণ। নগরবাসীকে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করার ড়্গেত্রে ১০ কি.মি. পানির পাইপ সংস্কার ও পানি উৎপাদক নলকূপ স্থাপিত হয়েছে ১২টি এবং ২ টি ওভারহেড পানির ট্যাঙ্কি নির্মাণ করা হয়েছে। ইতিহাস ঐতিহ্য সংরড়্গণে নগরের বিভিন্ন পয়েন্টের আইল্যান্ডগুলোকে সৌন্দর্য বর্ধন করা হয়েছে। শিড়্গা নগরী হিসেবে খ্যাত প্রথমবারের মত পৌরসভার উদ্যোগে এস.এস.সি ও এইচ.এস.সি শিড়্গার্থীদের সংবর্ধনা যা স্বরণীয় হয়ে পৌরবাসীর মাঝে। নগরবাসীর বিনোদনের ড়্গেত্রে জরাজীর্ণ বিপিন পার্কটিকে সংস্কার করে নতুন চেহারায় ফিরিয়ে আনা, পৌর জয়নুল উদ্যান পার্কটিকে সংস্কার করে নগরবাসীর মাঝে নতুন আদলে অন্য এক চেহারায় নিয়ে এসেছেন পার্কটিকে। সংস্কৃতির ড়্গেএে পুরনো ও জরাজীর্ণ বেহাল টাউনহলকে নতুন রূপে নির্মাণ করে নাম পরিবর্তন করে প্রয়াত মেয়র এড. মাহমুদ আল নূর তারেক স্মৃতি অডিটোরিয়াম নামে চালু করেছেন। বর্জ ব্যবস্থাপনায় অপরিচ্ছন্ন শহরটিতে এখন আর নাকে রম্নমাল বেধে চলাচল করতে হয় না। বর্জ ব্যবস্থাপনায় প্রায় ১০টি ইন্টায়ান গার্ভেজ ট্রাক যানবাহন সংগ্রহ করা সহ শিক্ষা নগরীকে দেশের মাঝে তুলে ধরতে প্রথমবারের মত জ্ঞানের আলো ছড়িয়ে দিতে পৌরসভার উদ্যোগে বইমেলার আয়োজন করে পৌরসভা।
গত পাঁচ বছর আগের অবহেলিত অপরিকল্পিত ময়মনসিংহ পৌরসভার মেয়র নির্বাচিত হয়ে জনগণের মাঝে প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছিলেন ময়মনসিংহ পৌরসভাকে তিলোত্তমা নগর গড়ে তোলার উন্নয়নের তেমন ছোঁয়া না লাগা নগরকে পরিকল্পিত ভাবে সাজাতে উদ্যোগ নিয়েছিলেন মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৯:৫৪ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ১৭, ২০১৬