|

পৃথক চার হত্যা মামলায় ২২ জনের ফাঁসি

অনলাইন ডেস্ক | ৩০ নভেম্বর ২০১৫, সোমবার,

নায়ায়ণগঞ্জ, চট্টগ্রাম, সিলেট ও গাজীপুরে পৃথক চার হত্যা মামলায় ২২ জনের ফাঁসি এবং ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান, জেলার বন্দর উপজেলায় স্কুল ছাত্র রাকিবুল হাসান ইমন হত্যা (১৩) মামলায় ৪ জনকে ফাঁসি প্রদান করে আদালত। একই সঙ্গে তাদের ৭ বছর করে জেল, সঙ্গে আরও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।
সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মিয়াজী মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, বন্দরের কামতাল মালিভিটা গ্রামের সাইফুর রহমান ওরফে সাইফুল (২৩), তোফাজ্জল হোসেন (২২), জামাল হোসেন (২২) ও শাহজাহান ওরফে জীবন (২১)। রায় ঘোষণার সময়ে সাইদুর ও তোফাজ্জল পলাতক ছিলেন। নারায়ণগঞ্জ আদালতের এপিপি এম এ রহিম জানান, নিহত ইমন বন্দরের কামতাল মালিভিটা এলাকার প্রবাসী নূরু মিয়ার ছেলে। সে সোনারগাঁয়ের এইচ জি জি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণী পড়ত। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ২০১৪ সালের ২৯ শে জানুয়ারি ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ পেতে ইমনকে অপহরণ করা হয়। টাকা না পেয়ে ওই দিন রাতেই ইমনকে হত্যার পর বন্দর মদনপুর মালিবাগে একটি মুরগির খামারের গর্তে পুঁতে রাখা হয়। এ ঘটনায় ইমনের মা ফেরদৌসি বেগম বাদী হয়ে পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা করেন। ৫ই ফেব্রুয়ারি তাদের দেয়া স্বীকারোক্তিতে ইমনের লাশ উদ্ধার করা হয়। এর আগে এ মামলার অপর আসামি আল আমিনকে (১৮) গত ১৪ই মে ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে আদালত। হত্যাকান্ডের পর গ্রেপ্তারের সময়ে আল আমিন নাবালক থাকায় জুবিনাইল আইনে এ বিচার কাজ সম্পন্ন করা হয়। তবে এখন সাবালক হওয়ায় তাকে নারায়ণগঞ্জ কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এদিকে কাপাসিয়া (গাজীপুর) প্রতিনিধি জানান, কাপাসিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জালাল উদ্দিন সরকার (৩৭) হত্যা মামলায় ১১ জনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। আজ বিকালে গাজীপুর জেলার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জর্জ-১ ফজলে এলাহী ভূইয়া এই রায় প্রদান করেন। দন্ড প্রাপ্তরা হলেন, উপজেলা ভাটপাড়া গ্রামের আবুল হাসেমের পুত্র ফারুক খান (৩০), পাব্রু গ্রামের লেহাজ উদ্দিনের পুত্র জর্জ মিয়া (২৮), আবদুল আজিজের পুত্র আল-আমিন (৩০), আতাউর রহমান (৩৫), মোহাম্মদ আলীর পুত্র ফরহাদ সরকার (৩০), উপজেলা যুবদল সভাপতি ও পাবুর গ্রামের সাদত আলীর পুত্র আবদুল আলিম(৩৪), আবুল হাসেমের পুত্র জয়নাল আবেদীন(৩৮), শ্রীপুর উপজেলা চিনাশুকানিয়া গ্রামের বেলায়েত হোসেন বেল্টু(২৬), খোদাদিয়া গ্রামের জালাল উদ্দিন ফকিরের পুত্র ও উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি আবদুল হালিম ফকির (৩০), বছির উদ্দিনের পুত্র রিপন (৩৪), সিরাজ ড্রাইভারের পুত্র ছাত্রদল নেতা জুয়েল (২৬)। ২০০৩ সালের ১৭ই আগস্ট বিকালে কাপাসিয়া উপজেলার পাবুর বলখেলার বাজার সংলগ্ন একটি টেকে আসাসিরা জালাল উদ্দিন সরকারকে কুপিয়ে ও হাতে-পায়ের রগ কেটে হত্যা করে। আসাসিরা সকলেই ছাত্রদল ও যুবদলের নেতাকর্মী। স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম থেকে জানান, চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলায় এক সিএনজি অটোরিকশা চালককে হত্যার দায়ে চারজনের ফাঁসি দিয়েছে চট্টগ্রামের একটি আদালত। এই ঘটনায় আরও দু’জনকে যাবজ্জীবন কারাদ-াদেশ দিয়েছে আদালত। সোমবার দুপুরে চট্টগ্রামের জননিরাপত্তা ট্রাইব্যুনালের বিচারক সৈয়দা হোসনে আরা এ আদেশ দেন। অপরদিকে আমাদের সিলেট অফিস থেকে জানানো হয়, সিলেটে আলোচিত শিশু আবু সাঈদ (৯) হত্যা মামলায় ৩ জনের ফাঁসির আদেশ দিয়েছে আদালত। সিলেট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিচারক আবদুর রশিদ সোমবার বিকাল পৌনে চারটায় এ রায় ঘোষণা করেন। দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, এসএমপির বিমানবন্দর থানার কনস্টেবল (বরখাস্তকৃত) এবাদুর রহমান, কথিত সোর্স আতাউর রহমান গেদা, সিলেট জেলা ওলামা লীগের সাধারণ সম্পাদক নূরুল ইসলাম রাকিব। অপর আসামি ওলামা লীগের প্রচার সম্পাদক মুহিব হোসেন মাসুমকে খালাস দেয়া হয়।

সর্বশেষ আপডেটঃ ৪:৩৮ অপরাহ্ণ | নভেম্বর ৩০, ২০১৫