|

ঈশ্বরগঞ্জে মহিলার জমি দখলের চেষ্টা ও মারধরের অভিযোগ

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে মনোয়ারা(৪০) নামীয় এক মহিলাকে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। নিজ জমি থেকে মনোয়ারাকে উচ্ছেদ করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে বলে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠেছে। জানা যায়, উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের হাসের আলগী গ্রামের ইয়াসিনের মেয়ে ও কোটেরচর গ্রামের কাসেমের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম পাঁচ ছয় বছর পূর্বে হাসেরআলগী বাজারে সাড়ে সাত শতাংশ জমি ক্রয় করে বসতবাড়ী তৈরি করে বসবাস করে আসছেন। একই গ্রামের কাজিম উদ্দিন ও তার ভাইয়েরা মনোয়ারার সাফ কাওলা জমিতে তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি রয়েছে দাবি করে বাজারের মধ্যে রাসত্মার পাশে কয়েক শতাংশ জমি বেদখল করে একটি দোকান ঘর নির্মান করে। বিষয়টি নিয়ে কয়েক দফা গ্রাম্য সালিশ বৈঠক হলেও কোন সমাধান না হওয়ায় এক পর্যায়ে আদালতের শরণাপন্ন হন মনোয়ারা। ওই আক্রোশে গত বৃস্পতিবার কাজিম উদ্দিনের ছেলে বিল্লাল ওই দোকানে বিকট আওয়াজে গান বাজাতে থাকে। বাড়ির ভেতর থেকে ওই গানের বিকট আওয়াজে গান বাজাতে নিষেধ করেন মনোয়ারা। এ সময় বিষয়টি নিয়ে বিলস্নাল ও মনোয়ারার মধ্যে বাগবিতন্ডা হয়। পরে বিল্লাল ক্ষিপ্ত হয়ে মনোয়ারাকে এলোপাথারি মারধর করে মারাত্বক আহত করে। মনোয়ারা বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
আহত মনোয়ারা জানান, ঘটনার দিন বিকট শব্দে গান বাজাতে থাকলে বিল্লালকে উচ্চ শব্দে গান বাজাতে নিষেধ করলে বিলস্নাল ক্ষিপ্ত হয়ে তার পিতা ও চাচাদের খবর দেয়। খবর পেয়ে তার চাচা ইছব আলী (৫৪), কছম আলী (৪৫) তাদের লোকজনদের নিয়ে ঘটনাস’লে এসে মনোয়ারাকে মারধোর করে।
এব্যাপারে কাজিম উদ্দিন জানান, ঘটনার দিন মনোয়ারা তার ছেলের দোকানে ভাংচুর করলে তার সাথে বাগবিতন্ডা হয়।
উচাখিলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিক জানান, জমিটি নিয়ে বছর খানেক আগে দুই পক্ষকে ডেকে নিয়ে মিমাংসা করে দেওয়া হয়েছিল। ##

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৫:১৬ অপরাহ্ণ | মে ১৭, ২০১৫