|

দুর্গাপুরে স্বামীর নির্যাতনে স্ত্রী আমেনা হাসপাতালে

নেত্রকোনা প্রতিনিধি : জেলার দুর্গাপুরের চন্ডিগড়ের পাথারিয়া গ্রামের স্বামী আবু তাহেরের(৩৬) বিরুদ্ধে মামলা করায় স্ত্রী আমেনা খাতুনকে(৩০) অমানষিক নির্যাতন করা হয়। গৃহবধূ দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন।
জানা গেছে, দুর্গাপুরের পাথারিয়া গ্রামের আবু তাহেরের বিরুদ্ধে স্ত্রী আমেনা খাতুন গত ২৬ ফেব্রয়ারী/১৫ দুর্গাপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে যৌতুকের মামলা করেন। যৌতুকের দাবী প্রত্যাহারসহ স্ত্রীকে ঘরে তুলে নেয়ার আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ৭ মে আদালত মামলাটি নিস্পত্তির আদেশ দেন। ওই দিনই মামলা উঠিয়ে নেয়ার পরই আমেনাকে বাড়ি নিয়ে আবু তাহের বেদম প্রহার করে। এক পর্যায়ে আমেনাকে কুপাতে চাইলে ফিরাতে গিয়ে বাম হাতের আঙ্গুল কেটে যায়।
আমেনা খাতুন জানান, তাকে বেদম মারপিট করার পর বিষাক্ত তরল পদার্থ তার মুখে ঢেলে দেয়া হয় ও পরক্ষনই পানিতে গুবর মিশিয়ে খাওয়ানো হয়। নির্যাতনের খবর পেয়ে তার বাবা লোকজন নিয়ে তাহেরের বাড়িতে যান এবং তাকে দুর্গাপুর হাসপাতালে ভর্তি করেন। কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. রাফিউল ইসলাম জানান, আমেনার শরীরের বিভিন্ন স’ানে আঘাত করা হয়েছে সুস’্য হয়ে উঠতে বেশ সময় লাগতে পারে।
উল্লেখ্য, গত ১৩ বছর আগে উপজেলার চন্ডিগড় ইউনিয়নের পাথারিয়া গ্রামের মৃত আবদুল মন্নাফের ছেলে আবু তাহেরের সাপথে একই উপজেলার গাওকান্দিয়া ইউনিয়নের উত্তর নাওধারা গ্রামের মো. তালেব আলীর মেয়ে মোছাম্মাৎ আমেনা খাতুনের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে এক ছেলে ও ২ মেয়ে সন্তান রয়েছে।

এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষ আপডেটঃ ৮:২২ অপরাহ্ণ | মে ১২, ২০১৫